8.8 C
Drøbak
বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ২১, ২০২১
প্রথম পাতাআন্তর্জাতিকঅনন্তলোকের পথে বাংলা আকাডেমির মহাপরিচালক কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী

অনন্তলোকের পথে বাংলা আকাডেমির মহাপরিচালক কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী

লিখেছেন: লিটন রাকিব

১৯৪৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর ফরিদপুরে জন্মগ্রহণ করেন। বাংলাদেশ প্রকৌশল ও কারিগরি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উচ্চশিক্ষা লাভ করেন। কারিগরি শিক্ষা থাকলেও কবিতার জগতেই নিজেকে মেলিয়ে দেন হাবীবুল্লাহ সিরাজী। ঢাকা ও কলকাতা দুই প্রধান শহরেই কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজীর বিশেষ জনপ্রিয়তা ছিল। তাঁর প্রয়াণ সংবাদে শোকের ছায়া দুই বাংলায়। শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান কলকাতার সাহিত্যিকরা। ভারাক্রান্ত হৃদয়ে স্মৃতি রোমন্থনে বারবার উঠে আসছে এপার বাংলার সাহিত্য মহলে।৩৩টি কাব্যগ্রন্থ, ১০টি ছড়ার সংকলন সহ তিনি লিখেছেন দুটি উপন্যাস ও অসংখ্য প্রবন্ধ। তাঁর কাব্যগ্রন্থগুলোর মধ্যে অন্যতম দাও বৃক্ষ দাও দিন, মোমশিল্পের ক্ষয়ক্ষতি, হাওয়া কলে জোড়াগাড়ি, নোনা জলে বুনো সংসার। জনপ্রিয় উপন্যাসগুলির মধ্যে রয়েছে- কৃষ্ণপক্ষে অগ্নিকাণ্ড, পরাজয়। আমার কুমার , দ্বিতীয় পাঠ, মিশ্রমিল, গদ্যের গন্ধগোকুল। শিশুসাহিত্যের মধ্যে ইল্লিবিল্লি, নাইপাই, রাজা হটপট, ফুঁ, মেঘভ্রমণ, ছয় লাইনের ভূত ও ছড়াপদ্য।

IMG 20210510 WA0014 অনন্তলোকের পথে বাংলা আকাডেমির মহাপরিচালক কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী
পশ্চিমবঙ্গে কবি ও লেখকদের সঙ্গে হাবীবুল্লাহ সিরাজী

কলকাতা আন্তর্জাতিক বইমেলায় আমার একটি বই উদ্বোধনে সূদুর ঢাকা থেকে উড়ে এসেছিলেন বিশিষ্ট এই কবি। এত বড় মানুষ হওয়া সত্বেও কোন অহংকার তাকে ছুঁতে পারেনি আজীবন। অতিসাধারণ ছিল তাঁর জীবন যাপন। তিনি আমাদের সাথে রাস্তায় দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে চা পান করেছিলেন, গল্প করেছিলেন অনেক অনেক, নিজের ব্যক্তিগত কতকথা শেয়ারও করে ছিলেন।অনেক ব্যস্ততার মধ্যে আমাদের সাথে অনেকক্ষণ সময় কাটিয়েছিলেন।সরকারি আমন্ত্রণ জানিয়েছিলে আমাদের কিন্তু সেই আমন্ত্রনে সাড়া দিয়ে আমাদের আর যাওয়া হয়ে ওঠে নি। সেই না যাওয়ার যন্ত্রণা কুরে কুরে খাচ্ছে। যাইহোক সে সময়ে আমাদের সঙ্গে ছিলেন বিশিষ্ট কবি সুব্রত রুদ্র, কবি রফিক উল ইসলাম,কবি সুধীর দও, কবি আরফিনা, কবি নৃপেন চক্রবর্তী, প্রমুখেরা।

কবি ১৯৯১ সালে বাংলা একাডেমী সাহিত্য পুরস্কার, ২০০৭ সালে বিষ্ণু দে পুরস্কার, ২০১০ সালে রূপসীবাংলা পুরস্কার, ২০১৬ সালে একুশে পদকসহ দেশি-বিদেশি নানা পুরস্কার ও সম্মাননায় ভূষিত হয়েছেন। উল্লেখ্য তিনি ২০১৮ সাল থেকে বাংলা আকাডেমির দায়িত্বভার সামলাচ্ছিলেন। অবশেষে করোনার থাবা এবং ক্যানসারের মতো মারন রোগের কাছে হার মানতে হল। কবি যেখানেই থাকুন ভালো থাকুন, চির বিশ্রামে থাকুন; শান্তিতে থাকুন!

লেখক: তরুন কবি, সমাজকর্মী ও গবেষক: যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়।

অতিথি লেখক
অতিথি লেখকhttps://www.samoyiki.com
সাময়িকীর অতিথি লেখক একাউন্ট। ইমেইল মাধ্যমে প্রাপ্ত লেখাসমূহ অতিথি লেখক একাউন্ট থেকে প্রকাশিত হয়।
অন্যান্য নিবন্ধসমূহ

সংবাদদাতা এবং লেখা আবশ্যক

নরওয়ে থেকে প্রকাশিত একমাত্র বাংলা পত্রিকা ‘সাময়িকী’ পত্রিকার জন্য বাংলাদেশ সহ বিশ্বের অন্যান্য দেশ থেকে সংবাদদাতা আবশ্যক।
ভায়োলেট হালদার
প্রধান সম্পাদক
[email protected]

গল্প-কবিতা সহ বিবিধ সাহিত্য রচনা প্রসঙ্গে ইমেইল করুন।
লিটন রাকিব
সাহিত্য সম্পাদক
[email protected]

- বিজ্ঞাপন -

সর্বাধিক পঠিত

সদ্য প্রকাশিত

লেখা কপি করার অনুমতি নেই, লিংক শেয়ার করুন।