শেষ দইয়ের ফোঁটা

অঞ্জলি দেনন্দী মম
অঞ্জলি দেনন্দী মম
1 মিনিটে পড়ুন
Photo by flutie8211 on Pixabay

মা- আশিস ওপর ঘর থেকে এবার নেমে আয়! লাঞ্চ কর! একটা তো বেজে গেলো রে!

আশিস- হ্যাঁ মা যাচ্ছি! এই স্নানটা করেই খাবো।

মা- আমি তাহলে খাবার রেডী করছি। তাড়াতাড়ি আয়! দেরী করিস না যেন!

আশিস- কই এসে গেছি। মা খেতে দাও! হ্যাঁ মা, আজ তুমি আমাকে কপালে দইয়ের ফোঁটা আগে দাও! তারপর ভাত মুখে তুলবো। আসনে বসে অপেক্ষা করছি। ফ্রীজ থেকে দইয়ের বাটিটা নিয়ে এসো!

মা- ক্যানো রে আশিস? আজ তোর হঠাৎ এরকম ইচ্ছা হল ক্যানো?

আশিস- আজই শেষ তো তাই।

এরপর মা আশিসের ঘর দিনের বেলা ক্যানো ভেতর থেকে খিল দিয়ে আটকানো, তা ঠিলে দেখলো। আলতো ভাবে আটকানো খিল খুলে গেল। আশিস গলায় দড়ি দিয়ে কড়ি থেকে ঝুলছে।

মা- আশিস রে এ এ এ …..

কেঁদে উঠলো। বাবাও এলো। কেঁদে উঠলো। আশিস- নিরুত্তর।

দিনটি থার্ড জুন, দুহাজার এক খ্রীষ্টাব্দ।

✍️এই নিবন্ধটি সাময়িকীর সুন্দর এবং সহজ জমা ফর্ম ব্যবহার করে তৈরি করা হয়েছে। আপনার লেখা জমাদিন!

গুগল নিউজে সাময়িকীকে অনুসরণ করুন 👉 গুগল নিউজ গুগল নিউজ

বিষয়:
এই নিবন্ধটি শেয়ার করুন
একটি মন্তব্য করুন

প্রবেশ করুন

পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?

পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?

আপনার অ্যাকাউন্টের ইমেইল বা ইউজারনেম লিখুন, আমরা আপনাকে পাসওয়ার্ড পুনরায় সেট করার জন্য একটি লিঙ্ক পাঠাব।

আপনার পাসওয়ার্ড পুনরায় সেট করার লিঙ্কটি অবৈধ বা মেয়াদোত্তীর্ণ বলে মনে হচ্ছে।

প্রবেশ করুন

Privacy Policy

Add to Collection

No Collections

Here you'll find all collections you've created before.

লেখা কপি করার অনুমতি নাই, লিংক শেয়ার করুন ইচ্ছে মতো!