15.1 C
Drøbak
রবিবার, জুলাই ৩, ২০২২
প্রথম পাতাগল্পঅণুগল্পসিদ্ধার্থ সিংহের হাফ ডজন ঝলক-গল্প

সিদ্ধার্থ সিংহের হাফ ডজন ঝলক-গল্প

ইয়ার্কি

লেকের ধারে বসে গল্প করতে করতে প্রেমিকা হঠাৎ গদগদ হয়ে বলল, তুমি বন্ধুদের সঙ্গে কত ইয়ার্কি মারো। মজা করো অথচ আমার সঙ্গে একটাও করো না, কেন গো?
কথাটা শুনে প্রেমিকার দিকে এক পলক তাকিয়ে প্রেমিকটি বলল, ওয়াও, তুমি কি সুন্দর গো… এক্কেবারে ফাটাফাটি।
প্রেমিকা সেটা শুনে লজ্জা পেয়ে বলল, থ্যাঙ্ক ইউ।
এটা বলার কয়েক মুহূর্ত পরেই, সে তার প্রেমিকের দিকে কটমট করে তাকাল।

ধোঁকাবাজ

তাপস তড়িঘড়ি এসে রেশমাকে বলল, তুই কি জানিস, তোর প্রেমিক তোকে ঠকাচ্ছে?
রেশমা বলল, কে? রহিম?
তাপস বলল, না।
— অ্যালবার্ট?
তাপস বলল, না।
— রাহুল?
তাপস বলল, হ্যাঁ।
রেশমা বলল, চশমা পরা, না চশমা ছাড়া?
তাপস বলল, চশমা ছাড়া।
রেশমা বলল, ছেলেরা সব এই রকমই হয়, ধোঁকাবাজ।

সর্বনাশ

লেকের ধারে প্রেমিকের পাশে বসে মেয়েটি বলল, এই শোনো, বিয়ের পরে আমাদের যখন বাচ্চা হবে, তখন তার নাম কি রাখবে?
প্রেমিক বলল, সর্বনাশ।
প্রেমিকা অবাক হয়ে বলল, সর্বনাশ! কেন, সর্বনাশ নাম রাখবে কেন?
প্রেমিক বলল, বাচ্চা হওয়ার পরে আমাদের যখন ঝগড়া হবে, তখন যাতে আমি রেগে গিয়ে বলতে পারি, তোমার সঙ্গে বিয়ে করে আমার সর্বনাশ হয়ে গেছে।

দরজা

লোকটা মাথায় করে দরজা নিয়ে যাচ্ছে দেখে এক প্রতিবেশী বলল ও ভাই, দরজা নিয়ে কোথায় যাচ্ছ? বিক্রি করবে নাকি?
লোকটি বলল, না, আসলে তালার চাবিটা হারিয়ে গেছে তো, তাই দরজার তালাটা খোলার জন্য নিয়ে যাচ্ছি।
প্রতিবেশীটি বলল, এখন যদি কোনও চোর ঢুকে তোমার ঘরের সব জিনিসপত্র নিয়ে যায়?
লোকটা বলল, ঢুকবে কী করে? দরজা তো আমার কাছে।

পাঁচটা বাচ্চা থাকলেই

স্বামী হাঁপাতে হাঁপাতে এসে বউকে বলল, শুনছ, খবরের কাগজে কী লিখেছে দেখো…
বউ বলল, কী লিখেছে?
স্বামী বলল, পাঁচটা বাচ্চা থাকলেই নাকি সরকার থেকে ফ্ল্যাট দেবে।
বউ বলল, আমরা কী করে পাব? আমাদের তো মাত্র তিনটে বাচ্চা।
স্বামী বলল, আমার এক্সের কাছে আরও দুটো বাচ্চা আছে না? ও দুটোকে নিয়ে আসব। তা আমাদের বাচ্চাগুলো কোথায়?
বউ বলল, তুমি একাই কি শুধু খবরের কাগজ পড়ো নাকি? যাদের বাচ্চা তারা নিয়ে গেছে।

মিলেমিশে

ছেলেটি এসে বলল, আমি তোমার মনে থাকতে চাই।
মেয়েটি বলল, থাকতেই পারো। তবে একটা শর্ত আছে। ছেলেটি বলল, কী শর্ত?
মেয়েটি বলল, ওখানে আরও যে ছেলেগুলো আছে তাদের সঙ্গে ঝগড়া করতে পারবে না।
ছেলেটি বলল, মানে?
মেয়েটি বলল, মিলেমিশে থাকবি।

সিদ্ধার্থ সিংহ
সিদ্ধার্থ সিংহ
২০২০ সালে 'সাহিত্য সম্রাট' উপাধিতে সম্মানিত এবং ২০১২ সালে 'বঙ্গ শিরোমণি' সম্মানে ভূষিত সিদ্ধার্থ সিংহের জন্ম কলকাতায়। আনন্দবাজার পত্রিকার পশ্চিমবঙ্গ শিশু সাহিত্য সংসদ পুরস্কার, স্বর্ণকলম পুরস্কার, সময়ের শব্দ আন্তরিক কলম, শান্তিরত্ন পুরস্কার, কবি সুধীন্দ্রনাথ দত্ত পুরস্কার, কাঞ্চন সাহিত্য পুরস্কার, দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা লোক সাহিত্য পুরস্কার, প্রসাদ পুরস্কার, সামসুল হক পুরস্কার, সুচিত্রা ভট্টাচার্য স্মৃতি সাহিত্য পুরস্কার, অণু সাহিত্য পুরস্কার, কাস্তেকবি দিনেশ দাস স্মৃতি পুরস্কার, শিলালিপি সাহিত্য পুরস্কার, চেখ সাহিত্য পুরস্কার, মায়া সেন স্মৃতি সাহিত্য পুরস্কার ছাড়াও ছোট-বড় অজস্র পুরস্কার ও সম্মাননা। পেয়েছেন ১৪০৬ সালের 'শ্রেষ্ঠ কবি' এবং ১৪১৮ সালের 'শ্রেষ্ঠ গল্পকার'-এর শিরোপা সহ অসংখ্য পুরস্কার। এছাড়াও আনন্দ পাবলিশার্স থেকে প্রকাশিত তাঁর 'পঞ্চাশটি গল্প' গ্রন্থটির জন্য তাঁর নাম সম্প্রতি 'সৃজনী ভারত সাহিত্য পুরস্কার' প্রাপক হিসেবে ঘোষিত হয়েছে।
অন্যান্য নিবন্ধসমূহ

সংবাদদাতা এবং লেখা আবশ্যক

নরওয়ে থেকে প্রকাশিত একমাত্র বাংলা পত্রিকা ‘সাময়িকী’ পত্রিকার জন্য বাংলাদেশ সহ বিশ্বের অন্যান্য দেশ থেকে সংবাদদাতা আবশ্যক।
ভায়োলেট হালদার
প্রধান সম্পাদক
[email protected]

গল্প-কবিতা সহ বিবিধ সাহিত্য রচনা প্রসঙ্গে ইমেইল করুন।
লিটন রাকিব
সাহিত্য সম্পাদক
[email protected]

- বিজ্ঞাপন -

সর্বাধিক পঠিত

সদ্য প্রকাশিত

লেখা কপি করার অনুমতি নেই, লিংক শেয়ার করুন।