রবিবার, নভেম্বর ২৭, ২০২২

ধর্মবাজ বনাম মুক্তবাজ: জাত পাত যার যার; আত্মদর্শন সবার পর্ব-৩

প্রকাশিত:

ধর্মীয় অনুভুতি কথাটি ভুল, ভুয়া ও অন্তঃসারশূন্য।
ধর্মীয় অনুভুতি বাক্যটিও যেমন ভুয়া, এর ব্যবহারও তেমন ভুল। কারণ ধর্ম বলতে পদার্থের বৈশিষ্ট্যকে বুঝায়। যেমন আগুনের ধর্ম দাহ্য করা, চুম্বকের ধর্ম লোহাজাতীয় পদার্থকে আকর্ষণ করা, দিকনির্ণায়কের (Compass) ধর্ম দিক নির্ণয় করা ও জলের ধর্ম নিম্নগামিতা। যেমন- কোনো আগুন যদি দাহ্য না করে, কোনো চুম্বক যদি লোহাজাতীয় পদার্থকে আকর্ষণ না করে, কোনো দিকনির্ণায়ক যদি দিক নির্ণয় না করে এবং কোনো জল যদি নিম্নগামী না হয়, তবে তাদের ধর্মীয় অনুভুতি নষ্ট হয়ে গেছে। তারা ধর্ম হারিয়ে ফেলেছে।

যতসম্ভব জানা যায়; বর্তমানে পৃথিবীতে প্রায় ২৫,০০ এর ওপর সাম্প্রদায়িক বা সাম্প্রদায়িক মতবাদ প্রচলিত। তার মধ্যে কয়েকটি সাম্প্রদায়িক সাম্প্রদায়িক মতবাদের অত্যন্ত সংক্ষিপ্ত বিবরণ তুলে ধরা হলো। বিশ্বের কয়েকটি ধর্মীয় মতবাদের সংক্ষিপ্ত পরিচিতি।

১. ইয়াজিদীবাদ (Yazidi)/ ايزيدية (ইজিদিয়া)
মতবাদ প্রবর্তকঃ —– খ্রিস্টাব্দ
উদ্ভবকালঃ ১,০০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ ইরাক।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ
গ্রন্থের ভাষাঃ তুর্কি।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ একেশ্বরবাদী।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ yapımcısı (ইয়াপিঞ্জিসে)।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃTanrı (তানরি)।
উপাসনালয়ঃ مسجد (মসজিদ)।
প্রতীকঃ ময়ূর ।

২. ইয়ারসানীবাদ (আহলি ই হক্ব) (اهل حق‎) (Yarsanism)/ ‘يارسانية’ (ইয়ারসানিয়া)
মতবাদ প্রবর্তকঃ সুলত্বান সাহাক্ব (১,৪০০-১,৫০০ খ্রিস্টাব্দ)
উদ্ভবকালঃ ১,৪০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ ইরান।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ
গ্রন্থের ভাষাঃ Gorani (গোরানি) ‘غوراني’ (গুরানি)।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ একেশ্বরবাদী।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ ‘سازنده’ (সাজনাদহু)।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ ‘خدا’ (খোদা)/ ‘خداوند’ (খোদাওন্দ)।
উপাসনালয়ঃ مسجد (মসজিদ)।
প্রতীকঃ ।

৩. ইসলামবাদ (Islamism)/ ‘إسلاموية’ (ইসলামুয়িয়া)
মতবাদ প্রবর্তকঃ মুহাম্মাদ (৫৭০- ৬২৩ খ্রিস্টাব্দ)।
উদ্ভবকালঃ ৬১০ খ্রিস্টাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ পারস্য।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ কুরান।
গ্রন্থের ভাষাঃ আরবি।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ একেশ্বরবাদী।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ ‘خالق’ (খালেক্ব)।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ ‘الله’ (আল্লাহ)।
উপাসনালয়ঃ مسجد (মসজিদ)।
প্রতীকঃ

৪. ইহুদীবাদ (Judaism)/ ‘يهودية’ (ইহুদিয়া)
মতবাদ প্রবর্তকঃ Abraham (আব্রাহাম) (ইব্রাহিম)।
উদ্ভবকালঃ ১,৩০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ মিশর।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ Old Testament/ তৌরাত।
(৩৯টি ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র আধ্যাত্মিক পুস্তিকা নিয়ে সংকলিত হয়েছে Old Testament. বর্তমানে আরবি ভাষায় একে তৌরাত বলা হয়।)
গ্রন্থের ভাষাঃ হিব্রু।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ একেশ্বরবাদী।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ ‘בורא’ ()।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ ‘לורד’/ Jehovah (জোভ)।
উপাসনালয়ঃ Synagogue (সিনাগগ)।
প্রতীকঃ

৫. কনফুসীবাদ (Confucianism)/ ‘كونفوشيوسية’ (কুনাফুশুসিয়া)
মতবাদর প্রবর্তকঃ কনফুসিয়াস (৫৫১-৪৭৯ খ্রিস্টপূর্বাব্দ)।
(বিখ্যাত গবেষকদের মতে এ মতবাদটিকে সাম্প্রদায়িক মতবাদ বলার চেয়ে দার্শনিক মতবাদ বলা অনেক যুক্তিযুক্ত।)
উদ্ভবকালঃ ৬০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ চীন।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ Lun-yu (লুন-ইউ)।
গ্রন্থের ভাষাঃ চীনা।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ অদ্বৈতবাদী।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ 製作者 (চিজচ)।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ 老爺 (লাংইয়ে)।
উপাসনালয়ঃ 寺廟 (চুনহিয়া)।
প্রতীকঃ

৬. ক্যাওদাইবাদ (Caodaism)/ كاودايية (ক্যাইদাইয়িয়া)
মতবাদ প্রবর্তকঃ —–খ্রিস্টাব্দ
উদ্ভবকালঃ ১,৯২৬ খ্রিস্টাব্দ ।
উৎপত্তিস্থানঃ ভিয়েতনাম।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ
গ্রন্থের ভাষাঃ ভিয়েতনামী।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ একেশ্বরবাদী।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ Tạo Hóa (টাও হয়া)।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ Chúa tể (চো তে)।
উপাসনালয়ঃ মন্দির।
প্রতীকঃ

৭. খ্রিস্টানবাদ (Christianism)/ ‘مسيحية’ (মাসিহিয়া)
মতবাদ প্রবর্তকঃ যিশু (১-৩৩ খ্রিস্টাব্দ)।
(স্মরণীয় যে ডাইওনিসিয়াম এক্সিগুয়াস নামের এক খ্রিস্টান পাদ্রি যিশুখ্রিস্টের জন্মের বছর থেকে গণনা করে ৫৩২ অব্দ থেকে খ্রিস্টাব্দের সূচনা করেন।)
উদ্ভবকালঃ ২৭ খ্রিস্টাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ রোম।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ New Testament/ ইঞ্জিল।
(২৭টি ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র আধ্যাত্মিক পুস্তিকা নিয়ে সংকলিত হয়েছে New Testament. বর্তমানে আরবি ভাষায় একে ইঞ্জিল বলা হয়।)
গ্রন্থের ভাষাঃ হিব্রু।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ একশ্বরবাদী।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ ‘בורא’ ()।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ ‘לורד’ ()।
উপাসনালয়ঃ Church/ ‘গির্জা’।
প্রতীকঃ Cross (ক্রুশ)।

৮. জরথুস্ত্রবাদ (Zoroastrianism)/ ‘زرادشتية’ (ঝারাদুস্তিয়া)
(Syn: Zoroastrism, Zarathustraism, Mazdaism, Mazdeism & Magianism)
মতবাদ প্রবর্তকঃ জরথ্রুস্ট (৬২৮-৫৫১ খ্রিস্টপূর্বাব্দ)।
উদ্ভবকালঃ ১,০০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ ইরান।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ Avesta (আবেস্তা)।
গ্রন্থের ভাষাঃ ফার্সি।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ একেশ্বরবাদী।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ ‘سازنده’ (সাজনাদহু)।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ ‘خدا’ (খোদা)/ ‘خداوند’ (খোদাওন্দ)।
উপাসনালয়ঃ উপাসনালয়।
প্রতীকঃ

৯. জুসিবাদ (Jucheism) زوتشية (জুতাশিয়া)
(Syn: Kimilsungism (কিমিলসাঙ্গিজম))
মতবাদ প্রবর্তকঃ Kim Il-Sung (কিম ইল সাং) (১,৯১২-১,৯৯৪ খ্রিস্টাব্দ)
উদ্ভবকালঃ ১,৯৫০ খ্রিস্টাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ উত্তর কোরিয়া।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ
গ্রন্থের ভাষাঃ কোরীয় (বর্ণের নাম হাঙ্গুল)।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ
সৃষ্টিকর্তার নামঃ 창조자 (সান্দোজা)।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ 범천 (হামসান)।
উপাসনালয়ঃ 사원 (সাওয়াম)।
প্রতীকঃ

১০. জেনবাদ (Zenaism)/ ‘زينية’ (ঝেনিয়া)
মতবাদ প্রবর্তকঃ বোধিধর্ম ( ৪৪০-৫২৮ খ্রিস্টাব্দ)
উদ্ভবকালঃ ৭০০ খ্রিস্টাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ ভারত।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ নির্দিষ্ট কোনো গ্রন্থ নেই।
গ্রন্থের ভাষাঃ
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ ঈশ্বরের অস্তিত্ব নেই।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ সৃষ্টিকর্তা।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ ব্রহ্মা।
উপাসনালয়ঃ মন্দির।
প্রতীকঃ

১১. জৈনবাদ (Jainism)/ ‘جاينية’ (জানিয়া)
মতবাদ প্রবর্তকঃ মহাবীর (৫৯৯-৫২৭ খ্রিস্টপূর্বাব্দ)/ (৫৪০-৪৬৮ খ্রিস্টপূর্বাব্দ)।
(২৪ জন তীর্থাঙ্কর এ মতবাদটি প্রচার করেন। তার মধ্যে মহাবীর ছিলেন ২৪তম।)
উদ্ভবকালঃ ৬০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ ভারত।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ নিজের নির্মিত গ্রন্থ নেই। তাঁর উপদেশবাণীর নাম ‘জৈনধর্মদর্শন’।
গ্রন্থের ভাষাঃ সংস্কৃত।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ নিরিশ্বরবাদী।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ সৃষ্টিকর্তা।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ ব্রহ্মা।
উপাসনালয়ঃ মন্দির।
প্রতীকঃ

১২. তাওবাদ (Taoism)/ ‘طاوية’ (ত্বাওয়িয়া)
মতবাদ প্রবর্তকঃ লাওজি/ লাওৎস (৫০০-৬০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দ (আনুমানিক))।
উদ্ভবকালঃ ৫৫০ খ্রিস্টপূর্বাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ চীন।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ TaoTeChing (তাওতেচিং)।
গ্রন্থের ভাষাঃ চীনা।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ সর্বেশ্বরবাদী।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ 製作者 (চিজচ)।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ 主 (চু)।
উপাসনালয়ঃ মন্দির।
প্রতীকঃ

১৩. তেনরিকোবাদ (Tenrikyoism)/ ‘تينريكية’ (তিনরিকিয়া)
মতবাদ প্রবর্তকঃ Miki Tenri (মিকি তেনরি) (এপ্রিল ১৮, ১৭৮৯ খ্রিস্টাব্দ)
উদ্ভবকালঃ ১৮৩৮ খ্রিস্টাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ জাপান।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ
গ্রন্থের ভাষাঃ জাপানী।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ
সৃষ্টিকর্তার নামঃ メーカ (মেকা)/ ওতোখেসামা।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ ロード (এয়াদা)/ খামিসামা।
উপাসনালয়ঃ 寺 (তেরা)।
প্রতীকঃ

১৪. দ্রুজবাদ (Druzeism)/ ‘درزية’ (দুরজিয়া)
মতবাদ প্রবর্তকঃ হামজা ও হাকিম।
ধর্মগুরুঃ দারাজী।
উদ্ভবকালঃ ১,০০০- ৯০০ খ্রিস্টাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ লেবানন।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ রাসাইল আল-হিকাম (জ্ঞানগ্রন্থ)।
গ্রন্থের ভাষাঃ হিব্রু।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ একেশ্বরবাদী।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ ‘בורא’ ()।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ ‘לורד’ ()।
উপাসনালয়ঃ ‘מקדש’ ()।
প্রতীকঃ

১৫. নিওপ্লাটোবাদ (Neoplatonism)/ ‘الأفلاطونية الحديثة’ (আলয়াফ্লাতুনিয়া আলহাদিসা)
মতবাদ প্রবর্তকঃ প্লটিনাস (২০৪-২৭০ খ্রিস্টাব্দ)।
উদ্ভবকালঃ ৩০০ খ্রিস্টাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ মিশর।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ প্লেটোদর্শন।
গ্রন্থের ভাষাঃ ফার্সি।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ একেশ্বরবাদী।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ ক্ষুনুম।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ خدا (খোদা)।
উপাসনালয়ঃ معبد (মুয়াব্বাদ)।
প্রতীকঃ

১৬. বাহাইবাদ (Bahaism)/ ‘بهائية’ (বাহায়িয়া)
মতবাদ প্রবর্তকঃ বাহাউল্লাহ (১৮১৭-১৮৯২ খ্রিস্টাব্দ)।
উদ্ভবকালঃ ১৮৬০ খ্রিস্টাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ ইরান।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ ‘الكتاب الأقدس’ কিতাব ই আকদাস।
গ্রন্থের ভাষাঃ আরবি।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ একেশ্বরবাদী।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ خالق (খালেক) ।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ اللہ (আল্লাহ)।
উপাসনালয়ঃ Bahai House (বাহাই হাউজ)/ মন্দির।
প্রতীকঃ

১৭. বৌদ্ধবাদ (Buddhism)/ ‘بوذية’ (বুজিয়া)
মতবাদ প্রবর্তকঃ গৌতম বুদ্ধ (৪৮৩-৫৬৩ খ্রিস্টপূর্বাব্দ)।
উদ্ভবকালঃ ৬০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ ভারত।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ ত্রিপিটক।
(১৭টি ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র আধ্যাত্মিক পুস্তক-পুস্তিকা নিয়ে সংকলিত হয়েছে ত্রিপিটক।)
গ্রন্থের ভাষাঃ পালি।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ অদ্বৈতবাদী।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ ব্রহ্মা।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ ঈশ্বর।
উপাসনালয়ঃ বিহার।
প্রতীকঃ

১৮. মাজদাকবাদ (Mazdakism)/ ‘مازداكية’ (মাজদাকিয়া)
মতবাদ প্রবর্তকঃ মাজদাক (- মৃত্যু ৫২৪-৫২৮ খ্রিস্টাব্দ)
উদ্ভবকালঃ ৪৮৪ খ্রিস্টাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ ইরান।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ মাজদাক।
গ্রন্থের ভাষাঃ ফার্সি।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ একেশ্বরবাদী।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ ‘آفریننده’ (আফারনানিদুহু)/ ‘پرور’ (পরোয়ার)।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ خدا খোদা।
উপাসনালয়ঃ معبد (মুয়াব্বাদ)।
প্রতীকঃ

১৯. মান্দাইবাদ (Mandaeism)/ ‘مندائية’ (মানাদাইয়া)
(Syn: Mandaeanism (مانوية) (মানাইয়া)/ Gnosticism (غنوصية) (গনুসিয়া)
মতবাদ প্রবর্তকঃ ——— খ্রিস্টাব্দ
উদ্ভবকালঃ ৫০/৭০০ খ্রিস্টাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ ইরাক।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ
গ্রন্থের ভাষাঃ আরামাইক/ সংস্কৃত।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ একেশ্বরবাদী/ সর্বেশ্বরবাদী।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ —–/ঈশ্বর।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ —-/ব্রহ্মা।
উপাসনালয়ঃ —–/মন্দির।
প্রতীকঃ

২০. রাস্তাফারীবাদ (Rastafarism) ‘راستافارية’ (রাসাতাফারিয়া)
(Syn: Rastafarianism ‘الراستافارية’ (আররাসাতাফারিয়া)
মতবাদ প্রবর্তকঃ Marcus Garvey (১৮৮৭-১৯৪০ খ্রিস্টাব্দ)
উদ্ভবকালঃ ১,৯৩০ খ্রিস্টাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ জ্যামাইকা, আফ্রিকা।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ Piby (ফিবি)।
সংকলকের নামঃ Robert Athlyi Rogers (রবার্ট এথলি রজাস)
গ্রন্থের ভাষাঃ রাস্তাফারী।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ একেশ্বরবাদী।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ Skepper (স্কেপার)।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ Here (হিরিই)।
উপাসনালয়ঃ Church (চার্চ)।
প্রতীকঃ

২১. শাক্তবাদ (Shaktism)/ ‘شاكتية’ (শাকাতিয়া)
মতবাদ প্রবর্তকঃ ( খ্রিস্টাব্দ)
উদ্ভবকালঃ ৩০০- ২০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ ভারত।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ দেবীভাগবত পুরাণ।
গ্রন্থের ভাষাঃ সংস্কৃত।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ একেশ্বরবাদী।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ ঈশ্বর।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ ব্রহ্মা।
উপাসনালয়ঃ মন্দির।
প্রতীকঃ

২২. শিখবাদ (Sikhism)/ ‘سيخية’ (সিখহিয়া)
মতবাদ প্রবর্তকঃ নানক (১৪৬৯-১৫৩৯ খ্রিস্টাব্দ)।
(১১ জন শিখ-গুরুর মধ্যে তিনি প্রথম ও ১১তম ছিলেন শিখ-গুরু গ্রন্থসাহিব)
উদ্ভবকালঃ ১৫০০ খ্রিস্টাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ ভারত।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ জ্ঞানসাহেব/ গ্রন্থসাহেব।
গ্রন্থের ভাষাঃ গুরুমুখী।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ সর্বেশ্বরবাদী।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ ঈশ্বর।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ ওয়াহিগুরু।
উপাসনালয়ঃ গুরুদুয়ারা।
প্রতীকঃ ।

২৩. শিন্তোবাদ (Shintoism)/ ‘شنتوية (শিতাওয়িয়া)
মতবাদ প্রবর্তকঃ একক কোনো প্রবর্তক নেই।
উদ্ভবকালঃ ৬৬০ খ্রিস্টপূর্বাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ জাপান।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ Kojiki (কোজিকি)।
গ্রন্থের ভাষাঃ জাপানী।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ বহুশ্বেরবাদী।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ メーカ (মেকা)/ ওতোখেসামা।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ ロード (এয়াদা)/ খামিসামা।
উপাসনালয়ঃ Shrine (শ্রাইন)।
প্রতীকঃ

২৪. শ্যামানীবাদ (Shamanism)/ شامانية (শামানিয়া)
মতবাদ প্রবর্তকঃ Eliade (এলিয়াদি)/ إليادي (ইলইয়াদি)
(জন্মঃ মার্চ ৯, ১৯০৭ বুখারেস্ট, রোম/ মৃত্যুঃ এপ্রিল ২২, শিকাগো, যুক্তরাষ্ট্র)।
উদ্ভবকালঃ
উৎপত্তিস্থানঃ আমেরিকা।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ
গ্রন্থের ভাষাঃ
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ
সৃষ্টিকর্তার নামঃ
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ
উপাসনালয়ঃ
প্রতীকঃ

২৫. সামারিতানবাদ (Samaritanism)/ سامرية (সামারিয়া)
মতবাদ প্রবর্তকঃ ( খ্রিস্টাব্দ)
উদ্ভবকালঃ খ্রিস্টাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ ইস্রাইল।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ Halacha (হ্যালেছা)।
গ্রন্থের ভাষাঃ হিব্রু।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ একেশ্বরবাদী।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ ‘בורא’ ()।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ ‘לורד’ ()।
উপাসনালয়ঃ ‘מקדש’ ()।
প্রতীকঃ

২৬. হিন্দুবাদ (Hinduism)/ هندوسية (হিন্দুসিয়া)
মতবাদ প্রবর্তকঃ একক কোনো প্রবর্তক নেই।
উদ্ভবকালঃ ১,৫০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ ভারত।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ বেদ।
(৪,০০০ ঋষির মুখ নিসৃত আধ্যাত্মিক বাণী একত্রিত করে সংকলিত হয়েছে বেদ।)
গ্রন্থের ভাষাঃ সংস্কৃত।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ বহুশ্বেরবাদী।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ সৃষ্টিকর্তা।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ ব্রহ্মা।
উপাসনালয়ঃ মন্দির।
প্রতীকঃ

২৭. হোয়া-হাওবাদ (Hoahaoism)/ هواهاوية (হুয়াহাউয়িয়া)
মতবাদ প্রবর্তকঃ Huỳnh Phú Sổ (১৯২০-১৯৪৭ খ্রিস্টাব্দ)
উদ্ভবকালঃ ১৯৩৯ খ্রিস্টাব্দ।
উৎপত্তিস্থানঃ ভিয়েতনাম।
ধর্মগ্রন্থের নামঃ
গ্রন্থের ভাষাঃ ভিয়েতনামী।
ঈশ্বর প্রকৃতিঃ একেশ্বরবাদী।
সৃষ্টিকর্তার নামঃ Đấng Tạo (দং তাও)।
সাম্প্রদায়িক সৃষ্টিকর্তাঃ Chúa tể (চো তে)।
উপাসনালয়ঃ Pagoda (প্যাগোডা)।
প্রতীকঃ

অতএব যার যার সাম্প্রদায়িক মতবাদ তার কাছে পরম পবিত্র। তাই রাজনৈতিক, সাম্প্রদায়িক, পারম্পরিক ও মরমীবাদ নিয়ে বাড়াবাড়ি করা বা কাউকে বল প্রয়োগ করে মতান্তরিত (ধর্মান্তরিত) করা (proselytize) অনুচিৎ।

চলবে…
ধর্মবাজ বনাম মুক্তবাজ: জাত পাত যার যার; আত্মদর্শন সবার। পর্ব-২

সর্বাধিক পঠিত

আরো পড়ুন
সম্পর্কিত

সমাজে পিরিয়ড সংক্রান্ত কুসংস্কার ও সচেতনতা

পিরিয়ড নারীদের একটি স্বাভাবিক জৈবিক প্রক্রিয়া। এটি সাধারণত প্রতি...

ধর্মবাজ বনাম মুক্তবাজ: যাত-পাত যার যার; আত্মদর্শন সবার পর্ব-৬

নাস্তিক Atheist (এ্যাথিস্ট)/ ‘ملحد’ (মিলহিদ)এটি শ্বরবিজ্ঞানের বৈক্তিক-বৈশিষ্ট্য সারণির ‘অবিশ্বাসী’...

বিভেদকামী শক্তির পতন সুনিশ্চিত করতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ই পথ দেখাবে

নভেম্বরের ৭ তারিখে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়-এর শুভ জন্মদিন। তৃণমূল কংগ্রেসের...

ধর্মবাজ বনাম মুক্তবাজ: জাত পাত যার যার; আত্মদর্শন সবার পর্ব-৫

ধর্ম/ Ism (ইজাম)/ ‘دين’ (দীন):এটি শ্বরবিজ্ঞানের বৈক্তিক-বৈশিষ্ট্য সারণির ‘স্বভাব’...
লেখা কপি করার অনুমতি নেই, লিংক শেয়ার করুন।