15.5 C
Drøbak
বৃহস্পতিবার, মে ২৬, ২০২২
প্রথম পাতাসাম্প্রতিকনাম পাল্টে “শিবশঙ্কর হালদার” পরিচয়ে ভারতের নাগরিক হন পিকে হালদার

নাম পাল্টে “শিবশঙ্কর হালদার” পরিচয়ে ভারতের নাগরিক হন পিকে হালদার

হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ করে বিদেশে পালিয়ে যাওয়া এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রশান্ত কুমার হালদার (পিকে হালদার) ভারতে গ্রেপ্তার হয়েছেন। জালিয়াতির মাধ্যমে তিনি দেশটির নাগরিক হয়ে গিয়েছিলেন। নাম পাল্টে “শিবশঙ্কর হালদার” পরিচয়ে বসবাস করছিলেন পশ্চিমবঙ্গে।

শনিবার (১৪ মে) ভারতের এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) এ তথ্য জানিয়েছে।

ইডি জানিয়েছে, তারা ৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। তাদের মধ্যে পিকে হালদারসহ তিনজন বাংলাদেশি। তাদের বিরুদ্ধে কয়েক হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ করে ভারত ও অন্যান্য দেশে পাচার করার অভিযোগ রয়েছে।

সংস্থাটি এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, জালিয়াতির মাধ্যমে পশ্চিমবঙ্গ থেকে রেশন কার্ড, ভারতীয় ভোটার আইডি কার্ড, স্থায়ী অ্যাকাউন্ট নম্বর ও আধার কার্ডের মতো বিভিন্ন সরকারি পরিচয়পত্র সংগ্রহ করেছেন পিকে হালদার। “শিবশঙ্কর হালদার” নামে নিজেকে ভারতীয় নাগরিক হিসেবে পরিচয় দিয়ে পশ্চিমবঙ্গে অবস্থান করছিলেন।

তার অন্যান্য সহযোগীরাও একই কাজ করেছেন বলে বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়।

ইডি নিশ্চিত করেছে, পিকে হালদারসহ ওই তিন বাংলাদেশি জালিয়াতির মাধ্যমে প্রাপ্ত পরিচয়পত্র ব্যবহার করে ভারতে প্রতিষ্ঠান খুলেছে এবং কলকাতার অভিজাত এলাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তিও কিনেছে।

সংস্থাটি এক কর্মকর্তা বলেন, “শুধু কাগজে-কলমেই আছে যে আসামিরা বিভিন্ন ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়েছে। প্রতারণার বিষয়টি বুঝতে পেরে ব্যাংকগুলো বাংলাদেশ পুলিশের আর্থিক গোয়েন্দা ইউনিটকে জানায়, যারা পরবর্তীতে ভারত সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করে।”

অন্যান্য নিবন্ধসমূহ

সংবাদদাতা এবং লেখা আবশ্যক

নরওয়ে থেকে প্রকাশিত একমাত্র বাংলা পত্রিকা ‘সাময়িকী’ পত্রিকার জন্য বাংলাদেশ সহ বিশ্বের অন্যান্য দেশ থেকে সংবাদদাতা আবশ্যক।
ভায়োলেট হালদার
প্রধান সম্পাদক
[email protected]

গল্প-কবিতা সহ বিবিধ সাহিত্য রচনা প্রসঙ্গে ইমেইল করুন।
লিটন রাকিব
সাহিত্য সম্পাদক
[email protected]

- বিজ্ঞাপন -

সর্বাধিক পঠিত

সদ্য প্রকাশিত

লেখা কপি করার অনুমতি নেই, লিংক শেয়ার করুন।