7.1 C
Drøbak
শুক্রবার, মে ২৭, ২০২২
প্রথম পাতাসাম্প্রতিকবিয়ের দাবিতে জামালপুরের তরুণী বরগুনায়, আদালত বললেন ব্যবস্থা নিতে

বিয়ের দাবিতে জামালপুরের তরুণী বরগুনায়, আদালত বললেন ব্যবস্থা নিতে

গত এপ্রিলের শেষদিকে বিয়ের দাবিতে প্রায় ৪৩০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে প্রেমিক মাহমুদুল হাসানের বরগুনার বাড়িতে এসে অবস্থান নেন জামালপুরের তরুণী শিখা আক্তার মৌ। এরপর থেকে ওই বাড়িতে বসেই আত্মহত্যার হুমকি দিয়ে আসছেন তিনি।

এতদিন ধরে এ ঘটনায় পুলিশ কোনো পদক্ষেপ না নিলেও ওই তরুণীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে বরগুনার বেতাগী থানার পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

মাহমুদুলের বাবার করা মামলা আমলে নিয়ে মঙ্গলবার (১০ মে) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বিচারক মাহবুব আলম এ নির্দেশ দেন।

মাহমুদুলের বাবা মোশাররফ হোসেন মামলায় ওই তরুণীর বিরুদ্ধে বাড়িতে অনধিকার প্রবেশ, জিম্মি করে রাখা ও আত্মহত্যার হুমকির অভিযোগ এনেছেন।

বাদীর আইনজীবী সাইমুল ইসলাম রাব্বি জানান, শিখা আক্তার মৌয়ের বাড়ি জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে। রাজধানীর একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনি আইন বিষয়ে পড়াশোনা করছেন। একই বিশ্ববিদ্যালয়ের সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে অধ্যয়নরত মাহমুদুল হাসানের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

তিন বছর প্রেমের পর সম্প্রতি মৌ বিয়ের কথা বললে মাহমুদুল তাকে বিভিন্ন অজুহাতে এড়িয়ে চলতে শুরু করেন। এরই মধ্যে রমজানের ছুটিতে মাহমুদুল বেতাগী উপজেলার চান্দখালীতে গ্রামের বাড়িতে আসেন।

তিনি আরও জানান, এরপর মৌ গত ২৬ এপ্রিল এসে মাহমুদুল হাসানের বাসার সামনে অবস্থান নেন। তখন মাহমুদুলদের বাড়িতে কেউ ছিলেন না।

২ মে দুপুরের পর চান্দখালী ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ সোনা মোল্লার উপস্থিতিতে এলাকার অর্ধশত মানুষ তালা ভেঙে মৌকে প্রেমিক মাহমুদুলের বাড়িতে তুলে দেয়। এরপর থেকে ওই তরুণী সেখানেই অবস্থান করছেন।

সাইমুল ইসলাম রাব্বি আরও জানান, ওই তরুণী তার প্রেমিকের মামাকে অবরুদ্ধ করে স্থানীয়দের সহায়তায় তালা ভেঙে ওই বাড়িতে ঢোকেন। বিয়ের দাবি মেনে না নিলে সেখানেই আত্মহত্যার হুমকি দেন। এরপর এ বিষয়ে কথা বলার জন্য মাহমুদুলের বাবা-মা বাড়িতে ফিরলে মৌ তাদেরও অবরুদ্ধ করেন।

মাহমুদুলের বাবা মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘‘ওই মেয়ের আগেও বিয়ে হয়েছিল এবং তার একটি সন্তান আছে। সে এসব তথ্য গোপন করেছে। আমরা তাকে তালাকনামা দেখাতে, বৈধ অভিভাবক হাজির করতে ও গণমাধ্যমের সঙ্গে আর কথা না বলার শর্ত দেই এবং এসব শর্ত পূরণ করলে বিয়ের দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাস দেই।’’

তিনি আরও বলেন, ‘‘কিন্তু সে (মৌ) শর্ত ভেঙে গণমাধ্যমে কথা বলা চালিয়ে যায়। তার সঙ্গে তালাকনামা ও অভিভাবক না এনে উল্টো আত্মহত্যার হুমকি দিতে থাকে। এ অবস্থায় অনধিকার প্রবেশ, জিম্মি করে রাখা ও আত্মহত্যার হুমকির অভিযোগে মঙ্গলবার সকালে তার নামে মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতে মামলা করি।’’

এদিকে, মাহমুদুলের বাড়িতে অবস্থানরত মৌয়ের সঙ্গে কথা বলা হলে তিনি জানান, এ বিষয়ে তার কোনো বক্তব্য নেই।

আইনজীবী সাইমুল ইসলাম রাব্বি জানান, বিচারক মাহবুব আলম বেতাগী থানাকে ওই তরুণীর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিতে আদেশ দিয়েছেন।

এ বিষয়ে বেতাগী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ আলম মোল্লা জানান, বিয়ের দাবিতে তরুণীর অবস্থান নেওয়ার খবর পেয়ে পুলিশ ওই বাড়িতে একাধিকবার গিয়েছে। তবে কারও কোনো লিখিত অভিযোগ না পাওয়ায় কোনো ব্যবস্থা নেওয়া সম্ভব হয়নি। আদালতের নির্দেশ হাতে পেলে পুলিশ যথাযথ ব্যবস্থা নেবে।

অন্যান্য নিবন্ধসমূহ

সংবাদদাতা এবং লেখা আবশ্যক

নরওয়ে থেকে প্রকাশিত একমাত্র বাংলা পত্রিকা ‘সাময়িকী’ পত্রিকার জন্য বাংলাদেশ সহ বিশ্বের অন্যান্য দেশ থেকে সংবাদদাতা আবশ্যক।
ভায়োলেট হালদার
প্রধান সম্পাদক
[email protected]

গল্প-কবিতা সহ বিবিধ সাহিত্য রচনা প্রসঙ্গে ইমেইল করুন।
লিটন রাকিব
সাহিত্য সম্পাদক
[email protected]

- বিজ্ঞাপন -

সর্বাধিক পঠিত

সদ্য প্রকাশিত

লেখা কপি করার অনুমতি নেই, লিংক শেয়ার করুন।