13 C
Drøbak
মঙ্গলবার, জুলাই ৫, ২০২২
প্রথম পাতাএক্সক্লুসিভএভাবেও ভাল থাকা যায় (পর্ব ২৬)

এভাবেও ভাল থাকা যায় (পর্ব ২৬)

মনের জোরই সফলতার প্রথম পদক্ষেপ

সফল হতে চাইলেই তো আর সফল হওয়া যায় না। সফল হতে গেলে সবার আগে প্রয়োজন মানসিকভাবে শক্তিশালী হওয়া। পরিস্থিতি যে সব সময় আপনার অনুকূল হবে তা কিন্তু নয়। পরিস্থিতি আপনার প্রতিকূলেও যেতে পারে, এটা অবশ্যই মাথায় রাখা দরকার। সেই কথা মাথায় রেখেই যে কোনও নতুন কাজ করা উচিত। তবে মানসিকভাবে শক্ত হওয়ার জন্য নিজের মনকেই সবার আগে স্থির করতে হবে। কিন্তু অনেকেই মনের জোর না বাড়িয়ে নিজের ভাগ্যকেই দোষারোপ করতে থাকেন। তবে ভাগ্যকে দোষারোপ না করে নিজের মনের জোর বাড়াতে চেষ্টা করুন।

এবার দেখে নিন কীভাবে নিজের মনের জোর বাড়িয়ে সফলতাকে আপনার সঙ্গী করবেন…

১) নিজেকে নিজের কাছে কখনোই করুণার পাত্র বা পাত্রী করতে নেই। নিজেকে কখনো দুঃখী ভাবতে নেই। নিজেকে আহারে ভাবার কোনো কারণ নেই, এর ফলে নিজের কাছেই নিজে ক্রমাগত দুর্বল হয়ে পড়তে হবে।

২) লক্ষ্যে স্থির থাকা উচিত। পাশে কেউ থাকুক বা না থাকুক একেবারে ভয় পাওয়া চলবে না। নিজের লড়াইটা নিজেকেই লড়তে হবে। যদি কেউ সঙ্গে চলতে না চায় তাহলে একলাই চলতে হবে। এক্ষেত্রে একটা দারুণ সুবিধে হল সাফল্য পাওয়ার পর কারোর প্রতি কৃতজ্ঞতা স্বীকার করতে হবে না।

৩) জীবনে অনেক কিছু আসবে, আবার যাবেও। পরিবর্তনও হবে অনেক কিছু। আমাদের প্রতিদিনের জীবনে যদি কোনও পরিবর্তন ঘটে তাহলে ভয় পাবার কিছু নেই। মনে রাখতে হবে প্রতিটি পরিবর্তনই নিজের কাছে এক একটা চ্যালেঞ্জ। তাই ভয় না পেয়ে পরিবর্তনকে আপন করে নিতে হবে।

৪) মন না চাইলে সেই কাজ না করাই ভাল। সব কাজই যে আমাদের ভাল লাগে তা তো নয়। ধরুন এমন কাজ যা আপনার ঠিক পছন্দ নয়। তাই আপনি ঠিক পারবেন না। এমনকি আপনার মনে কাজের প্রতি অতটা কনফিডেন্ট নেই। তখন সেই কাজ না করাই ভালো। যে কাজ আপনি মন থেকে ভালবাসেন সেই কাজ করুন। আসলে যেখানে ভালোবাসা নেই, সেখানে প্রাণও নেই।

৫) অন্যের কথায় গুরুত্ব দিতে গিয়ে নিজের অনেকটা সময় যেমন নষ্ট হয়, নিজের মনের এবং কাজেরও ক্ষতি হয়। কে কি বলল তাতে আপনার কি! কারোর কথায় গুরুত্ব দেওয়া ছেড়ে দিন। নিজের জীবন কীভাবে কাটাবেন, কী কাজ করে ভালো থাকবেন তা একান্ত আপনার সিদ্ধান্ত। আপনার জীবনের সিদ্ধান্ত নেওয়ার দায়িত্ব অন্য কারোর হাতে কখনওই দেবেন না।

৬) ভাগ্যকে একদম দোষ দেবেন না। জীবনে কি নেই, জীবনে কি হয়নি তা নিয়ে একদম চিন্তা করবেন না। কি হতে পারে সেই নিয়ে ভাবনা চিন্তা করুন। তাতে আপনার সময়ও বাঁচবে এবং নিজের মনোবলও বাড়বে।

৭) মানুষ মাত্রেই ভুল করে কিন্তু একই ভুল বার বার করার কোনও মানেই হয়না। বার বার একই ভুল করতে থাকলে আস্তে আস্তে নিজের মনোবল ভেঙে যাবে। তাই একই ভুল বারবার না করে ধীরে সুস্থে কাজ করুন।

৮) অন্যের ভালতে খুশি হবেন। অন্যের আনন্দে নিজেকেও মিশিয়ে দেবেন সেই আনন্দের সঙ্গে। অন্যের খুশিতে খুশি হওয়ার পাশাপাশি মানুষের সঙ্গে সম্পর্কও ভালো রাখতে হবে। দেখবেন আপনার সাফল্যতে এবং খারাপ সময় অনেকের সঙ্গ পাবেন। তবে যদি অন্যের খুশিতে খুশি না হন তাহলে আপনি ভেঙে পড়বেন।

৯) প্রথমবার সফল হতে না পারলে ভেঙে পড়বেন না। যদি দ্বিতীয় বারও সফল হতে না পারেন, তাহলেও ভেঙে না পড়ে আবার চেষ্টা করুন। দেখুন চেষ্টা না করলে কেউই কখনও সফল হতে পারে না। তাই প্রথমবার বা দ্বিতীয়বার যদি কোনওভাবে সফল হতে না পারেন তাহলে ভেঙে না পড়ে শক্ত হয়ে উঠে দাঁড়ান।

১০) একাকীত্বকে জয় করুন। একবার জয় করতে পারলে আর কোনো কিছুতেই আপনি আর ভয় পাবেন না। আপনার সঙ্গে কেউ না থাকলেও একাকীত্বকে ভয় পাবেন না। যদি খারাপ সময় কেউ আপনার পাশে দাঁড়াতে না চায় তাহলে ক্ষতি কি। একাই পরিস্থিতির মোকাবিলা করুন। দেখবেন এতে আপনার মন যেভাবে শক্ত হবে তা কখনওই আর ভেঙে যাবে না।

১১) মনটাকে একেবারে দিঘির মতো ধীর-স্থির করে নিন। যদি পরিস্থিতি কখনো আপনার অনুকূলে না থাকে, তখন মনটাকে একদম শান্ত ধীর-স্থির করে নিন, তারপর ঠান্ডা মাথায় ধীরে ধীরে কাজ করুন। তাড়াহুড়ো করে কাজ করলে কোনো কিছুই ঠিকঠাক হবে না। অনেক ভুল হয়ে যাবে। তাই পরিস্থিতি আপনার প্রতিকূল হলে মাথা ঠান্ডা রেখে কাজ করুন।

১২) একটা কাজ সম্পন্ন করার পর নিজেকে নিয়ে বেশি উচ্ছ্বাস না দেখিয়ে বা নিজেকে অতো জাহির না করে আপনি আপনার লক্ষ্যে স্থির থাকুন। যাতে কেউ না আপনাকে লক্ষ্যভ্রষ্ট করতে পারে। সফল হওয়ার পরেও নিজেকে জাহির করবেন না। কারণ নিজের কথা আপনি কেন বলবেন, লোকে বলবে। এতে আপনার নিজের কাছেও নিজের সম্মান থাকবে।

(চলবে)

মণিজিঞ্জির সান্যাল
মণিজিঞ্জির সান্যাল
মণিজিঞ্জির সান্যাল, বাংলা সাহিত্যে এম.এ., ক্ল্যাসিক্যাল নৃত্য প্রভাকর; জন্মদিন: ২৯শে বৈশাখ, ইং ১৩ই মে; জন্মস্থান: ভারতবর্ষ, পশ্চিমবঙ্গের দার্জিলিং জেলার শিলিগুড়ি। যে সব পত্র পত্রিকায় লিখেছেন: আনন্দবাজার, দেশ, সানন্দা, শুকতারা, কিশোর ভারতী, শিলাদিত্য, যুগ শঙ্খ, নন্দন, তথ্যকেন্দ্র, উত্তরবঙ্গ সংবাদ পত্রিকা, উত্তরের সারাদিন, স্টেটসম্যান, অন্যদিন পত্রিকা (বাংলাদেশ), এছাড়া অসংখ্য লিটিল ম্যাগাজিনে গল্প, উপন্যাস, কবিতা, ভ্রমণ কাহিনী প্রকাশিত হয়েছে। দেশের বাইরে কুয়েত, বাংলাদেশ, কানাডা, লন্ডন এমন অনেক বিদেশের পত্র পত্রিকায় নিয়মিত লেখা প্রকাশিত হয়। প্রকাশিত বই: (১) একটুকু ছোঁয়া লাগে (কলকাতা থেকে প্রকাশিত) (২) স্বপ্নের পৃথিবী (কলকাতা থেকে প্রকাশিত) (৩) অতৃপ্ত আত্মার সঙ্গে (৪) সমুদ্র তোমার সঙ্গে (বাংলাদেশ থেকে প্রকাশিত) (৫) সম্পর্কের পরিচর্যা (বাংলাদেশ থেকে প্রকাশিত) (৬) কমলালেবুর রস নোনতা (কলকাতা থেকে প্রকাশিত) (৭) ভালোবাসার গোপন দরজা (৮) মাটির কাছাকাছি
অন্যান্য নিবন্ধসমূহ

সংবাদদাতা এবং লেখা আবশ্যক

নরওয়ে থেকে প্রকাশিত একমাত্র বাংলা পত্রিকা ‘সাময়িকী’ পত্রিকার জন্য বাংলাদেশ সহ বিশ্বের অন্যান্য দেশ থেকে সংবাদদাতা আবশ্যক।
ভায়োলেট হালদার
প্রধান সম্পাদক
[email protected]

গল্প-কবিতা সহ বিবিধ সাহিত্য রচনা প্রসঙ্গে ইমেইল করুন।
লিটন রাকিব
সাহিত্য সম্পাদক
[email protected]

- বিজ্ঞাপন -

সর্বাধিক পঠিত

সদ্য প্রকাশিত

লেখা কপি করার অনুমতি নেই, লিংক শেয়ার করুন।