14.1 C
Drøbak
শুক্রবার, মে ২৭, ২০২২
প্রথম পাতাসাম্প্রতিকরাজধানীতে সরকারী সাত হাসপাতালে আইসিইউ ফাঁকা নেই

রাজধানীতে সরকারী সাত হাসপাতালে আইসিইউ ফাঁকা নেই

রাজধানী ঢাকার করোনায় আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার জন্য নির্ধারিত ষোলটি হাসপাতালের মধ্যে বড় সাতটি সরকারী হাসপাতালেই নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ফাঁকা নেই। আজ শুক্রবার (২৩ জুলাই) স্বাস্থ্য অধিদফতর এ তথ্য জানায়।

ঢাকায় করোনা রোগীদের চিকিৎসা দেওয়ার জন্য সরকারিভাবে ১৬টি হাসপাতাল নির্ধারিত। তার মধ্যে, সংক্রামক ব্যাধি হাসপাতাল, ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরো সায়েন্সেস ও হাসপাতাল এবং ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব কিডনি ডিজিজেস অ্যান্ড ইউরোলজি হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা হলেও সেখানে তাদের জন্য আইসিইউ নেই।

অন্যান্য ১৩টি হাসপাতালের মধ্যে কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতালের ২৬ বেড, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের ১০ বেড, শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালের ১৬ বেড, সরকারি কর্মচারী হাসপাতালের ছয় বেড, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ২০ বেড, মুগদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ২৪ বেড ও শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ১০ বেডের কোথাও করোনা রোগীদের জন্য আইসিইউ বেড ফাঁকা নেই। অর্থাৎ করোনা রোগীদের চিকিৎসা দেওয়া রাজধানী ঢাকার সরকারি বড় সাত হাসপাতালের আইসিইউর সব বেডে রোগী ভর্তি রয়েছে।

অন্য হাসপাতালগুলোর মধ্যে রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালের ১৫ বেডের মধ্যে পাঁচটি, জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউট ও হাসপাতালের আট বেডের মধ্যে একটি, টিবি হাসপাতালের ১৬ বেডের মধ্যে ১২টি, জাতীয় বক্ষব্যাধি ইন্সটিটিউট ও হাসপাতালের ১০ বেডের মধ্যে তিনটি, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০ বেডের মধ্যে একটি আর ডিএনসিসি ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালের ২১২ বেডের মধ্যে ২০টি বেড ফাঁকা রয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানিয়েছে, রাজধানী ঢাকার আইসিইউ না থাকা তিনটি হাসপাতাল বাদ দিয়ে বাকী ১৩টি হাসপাতালের ৩৯৩টি আইসিইউ বেডের মধ্যে ফাঁকা রয়েছে মাত্র ৪২টি।

অন্যান্য নিবন্ধসমূহ

সংবাদদাতা এবং লেখা আবশ্যক

নরওয়ে থেকে প্রকাশিত একমাত্র বাংলা পত্রিকা ‘সাময়িকী’ পত্রিকার জন্য বাংলাদেশ সহ বিশ্বের অন্যান্য দেশ থেকে সংবাদদাতা আবশ্যক।
ভায়োলেট হালদার
প্রধান সম্পাদক
[email protected]

গল্প-কবিতা সহ বিবিধ সাহিত্য রচনা প্রসঙ্গে ইমেইল করুন।
লিটন রাকিব
সাহিত্য সম্পাদক
[email protected]

- বিজ্ঞাপন -

সর্বাধিক পঠিত

সদ্য প্রকাশিত

লেখা কপি করার অনুমতি নেই, লিংক শেয়ার করুন।