-6.1 C
Drøbak
শনিবার, ডিসেম্বর ৪, ২০২১
প্রথম পাতাবিচিত্রাবারবার ব্যর্থ হওয়া যে লোকটি অবসর গ্রহণের পরে আত্মহত্যা করতে গিয়েছিলেন, তাঁর...

বারবার ব্যর্থ হওয়া যে লোকটি অবসর গ্রহণের পরে আত্মহত্যা করতে গিয়েছিলেন, তাঁর রেসিপি এখন গোটা বিশ্ব জুড়ে

জীবনের প্রতি হতাশ হয়ে ৬৫ বছর বয়সে অবসর গ্রহণের পরে আত্মহত্যা করতে গিয়েছিলেন আমেরিকার কর্নেল হারল্যান্ড ডেভিড স্যান্ডার্স। তাঁর জন্ম ১৮৯০ সালের ৯ সেপ্টেম্বর।

মাত্র ৫ বছর বয়সেই তিনি বাবাকে হারান। বাবাকে হারানোর পরে সংসারের যাবতীয় দায়িত্ব এসে পড়ে তাঁর কাঁধে। যখন তাঁর মা বাইরে কাজ করতে যেতেন, হারল্যান্ডকে তাঁর ছোট ভাই ও বোনকে দেখেশুনে রাখতে হত। রান্না করতে হত। মাত্র সাত বছর বয়সেই বেশ ভাল রান্না শিখে গিয়েছিলেন তিনি। কয়েক বছর পরে আবার বিয়ে করেন তাঁর মা। নতুন বাবার অত্যাচারে হারল্যান্ডকে সেই বাড়ি থেকে এক কাপড়ে বেরিয়ে আসতে হয় এবং ১৯০৩ সালে স্কুলটুল ছেড়ে দিয়ে একটা খামারে কাজ করতে শুরু করেন তিনি।

ent209 বারবার ব্যর্থ হওয়া যে লোকটি অবসর গ্রহণের পরে আত্মহত্যা করতে গিয়েছিলেন, তাঁর রেসিপি এখন গোটা বিশ্ব জুড়ে
বারবার ব্যর্থ হওয়া যে লোকটি অবসর গ্রহণের পরে আত্মহত্যা করতে গিয়েছিলেন, তাঁর রেসিপি এখন গোটা বিশ্ব জুড়ে 5

মায়ের পরামর্শে ১৯০৬ সালে তিনি তাঁর এক কাকার সঙ্গে দেখা করেন। সেই কাকা কাজ করতেন ইন্ডিয়ানার নিউ আলবানিতে। একটি গাড়ি প্রস্তুতকারক কোম্পানিতে। কাকা তাঁকে ওই কোম্পানিতেই গাড়ি রং করার একটি চাকরি করে দেন। কিন্তু সেটাও তাঁর টিঁকল না। ১৭ বছর বয়সের মধ্যে মোট ৪ বার চাকরি খোয়ালেন তিনি। তবু ১৮ বছর বয়সেই বিয়ে করে ফেললেন। ১৯ বছর বয়সেই হয়ে গেলেন বাবা।
তার পরে রেলে চাকরি। সেই চাকরির পাশাপাশি করেসপন্ডেন্স কোর্সে আইন পড়তে শুরু করলেন হারল্যান্ড। কিন্তু বিবাদে জড়িয়ে পড়ায় রেলের চাকরিটিও হারাতে হল তাঁকে। এর প্রভাবও পড়ল সংসারে। দুই মেয়েকে নিয়ে স্ত্রী জোসেফিন চলে গেলেন তাঁর বাবা-মায়ের কাছে।

আইন পাস করে শুরু করলেন প্র্যাক্টিস। ভালই পশার জমিয়েছিলেন। কিন্তু তাঁর বদ মেজাজের জন্য সব মক্কেলই আস্তে আস্তে সরে যেতে লাগলেন। ফলে বন্ধ হয়ে গেল আইন প্র্যাক্টিসও। এর পরে তিনি সেনাবাহিনীতে যোগ দিলেন এবং সেখানেও তিনি ব্যর্থ হলেন। তার পর যোগ দেন ইনস্যুরেন্স কোম্পানিতে। কিন্তু সেখানেও আলোর মুখ দেখতে পাননি তিনি।

main qimg 9d6d8bb6cc62f68859b0b2f0883ecdce 1 বারবার ব্যর্থ হওয়া যে লোকটি অবসর গ্রহণের পরে আত্মহত্যা করতে গিয়েছিলেন, তাঁর রেসিপি এখন গোটা বিশ্ব জুড়ে
বারবার ব্যর্থ হওয়া যে লোকটি অবসর গ্রহণের পরে আত্মহত্যা করতে গিয়েছিলেন, তাঁর রেসিপি এখন গোটা বিশ্ব জুড়ে 6

এর মধ্যে একদিন নিজের মেয়েদের নিজেই অপহরণ করতে গিয়েছিলেন। সেটাও পারেননি। এর পর চাকরি নিয়েছিলেন রেললাইনের কন্ডাকটর হিসেবে। কিন্তু সেখানেও সুবিধে করতে পারলেন না।

তার পর কাজ নিলেন জীবনবীমায়। সেটাতেও ব্যর্থ হলেন। ‌ক’দিন পরেই শুরু করলেন নিজের ফেরি সংস্থা। সেটাও বন্ধ হয়ে গেল। আরম্ভ করলেন অ্যাসিটিলিন বাল্ব তৈরির কাজ। এ সময় বাজারে এসে গেল নতুন ইলেকট্রিক বাল্ব। যার ফলে বন্ধ হয়ে গেল তাঁর বাল্ব তৈরির কাজও।

অবশেষে এক ক্যাফেতে রাঁধুনির চাকুরি নেন তিনি এবং শেষ পর্যন্ত সেখানেই থিতু হন।

৬৫ বছর বয়সে তিনি অবসর নেন। রিটায়ারমেন্টের সময় সরকারের কাছ থেকে ১০৫ ডলারের একটা চেক পেয়েছিলেন।

DicfhJsUEAA C8Q বারবার ব্যর্থ হওয়া যে লোকটি অবসর গ্রহণের পরে আত্মহত্যা করতে গিয়েছিলেন, তাঁর রেসিপি এখন গোটা বিশ্ব জুড়ে
বারবার ব্যর্থ হওয়া যে লোকটি অবসর গ্রহণের পরে আত্মহত্যা করতে গিয়েছিলেন, তাঁর রেসিপি এখন গোটা বিশ্ব জুড়ে 7

তখন তাঁর মনে হয়েছিল, তাঁর জীবনটাই বৃথা। মূল্যহীন। তাই তখনই তিনি সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন আত্মহত্যা করার। আত্মহত্যা করতে যাওয়ার আগে একটি গাছের নীচে বসে জীবনে কী কী অর্জন করেছেন তার একটা লিস্ট বানাতে শুরু করলেন। হঠাৎ তাঁর মনে হল, তিনি কি কিছুই পারেন না? তখনই তাঁর খেয়াল হল, তিনি পারেন। সবার চাইতে একটি জিনিস তিনি খুব ভাল পারেন। আর তা হল— খুব ভাল রান্নাবান্না।
ফলে ৮৭ ডলার ধার করলেন সেই চেকের বিপরীতে। আর সেই ডলার দিয়ে কিছু মুরগি কিনে এনে নিজের রেসিপিতেই সেগুলো ফ্রাই করলেন। তার পর কেন্টাকিতেই প্রতিবেশীদের দরজায় দরজায় গিয়ে সেই ফ্রাইড চিকেন বিক্রি করা শুরু করলেন! নাম দিলেন কেন্টাকি ফ্রায়েড চিকেন। যেহেতু কেন্টাকি শহর থেকেই এর যাত্রা শুরু হয়েছিল, তাই তার স্মরণেই এই নাম। যাকে বিশ্বের সবাই এখন সেই নামের সংক্ষিপ্তকরণ ‘কে এফ সি’ নামেই বেশি চেনেন। আর এই রেস্তোরাঁর অসামান্য স্বাদের খাবারের জন্যেই ১৯৫০ সালে কেন্টাকির গভর্নর তাঁকে ‘কর্নেল’ উপাধি দেন। যেটা একটি রাজ্যের পক্ষে সর্বোচ্চ সম্মান।

sanders বারবার ব্যর্থ হওয়া যে লোকটি অবসর গ্রহণের পরে আত্মহত্যা করতে গিয়েছিলেন, তাঁর রেসিপি এখন গোটা বিশ্ব জুড়ে
বারবার ব্যর্থ হওয়া যে লোকটি অবসর গ্রহণের পরে আত্মহত্যা করতে গিয়েছিলেন, তাঁর রেসিপি এখন গোটা বিশ্ব জুড়ে 8

৬৫ বছর বয়সে যিনি আত্মহত্যা করতে চেয়েছিলেন, সেই কর্নেল হারল্যান্ড ডেভিড স্যান্ডার্সই ৮৮ বছর বয়সে হয়ে যান বিলিয়নিয়ার।

১৯৮০ সালের ১৬ ডিসেম্বরে ৯০ বছর বয়সে বিশ্বখ্যাত এই ব্যবসায়ী মারা গেলেও, না, বিলিয়নিয়ার হিসেবে নয়, তিনি স্মরণীয় হয়ে আছেন কে এফ সি-র প্রতিষ্ঠাতা হিসেবে! যাদের গোটা বিশ্বজুড়ে কর্মীসংখ্যা এখন প্রায় সাড়ে সাত লাখ।

সিদ্ধার্থ সিংহ
সিদ্ধার্থ সিংহ
২০২০ সালে 'সাহিত্য সম্রাট' উপাধিতে সম্মানিত এবং ২০১২ সালে 'বঙ্গ শিরোমণি' সম্মানে ভূষিত সিদ্ধার্থ সিংহের জন্ম কলকাতায়। আনন্দবাজার পত্রিকার পশ্চিমবঙ্গ শিশু সাহিত্য সংসদ পুরস্কার, স্বর্ণকলম পুরস্কার, সময়ের শব্দ আন্তরিক কলম, শান্তিরত্ন পুরস্কার, কবি সুধীন্দ্রনাথ দত্ত পুরস্কার, কাঞ্চন সাহিত্য পুরস্কার, দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা লোক সাহিত্য পুরস্কার, প্রসাদ পুরস্কার, সামসুল হক পুরস্কার, সুচিত্রা ভট্টাচার্য স্মৃতি সাহিত্য পুরস্কার, অণু সাহিত্য পুরস্কার, কাস্তেকবি দিনেশ দাস স্মৃতি পুরস্কার, শিলালিপি সাহিত্য পুরস্কার, চেখ সাহিত্য পুরস্কার, মায়া সেন স্মৃতি সাহিত্য পুরস্কার ছাড়াও ছোট-বড় অজস্র পুরস্কার ও সম্মাননা। পেয়েছেন ১৪০৬ সালের 'শ্রেষ্ঠ কবি' এবং ১৪১৮ সালের 'শ্রেষ্ঠ গল্পকার'-এর শিরোপা সহ অসংখ্য পুরস্কার। এছাড়াও আনন্দ পাবলিশার্স থেকে প্রকাশিত তাঁর 'পঞ্চাশটি গল্প' গ্রন্থটির জন্য তাঁর নাম সম্প্রতি 'সৃজনী ভারত সাহিত্য পুরস্কার' প্রাপক হিসেবে ঘোষিত হয়েছে।
অন্যান্য নিবন্ধসমূহ

সংবাদদাতা এবং লেখা আবশ্যক

নরওয়ে থেকে প্রকাশিত একমাত্র বাংলা পত্রিকা ‘সাময়িকী’ পত্রিকার জন্য বাংলাদেশ সহ বিশ্বের অন্যান্য দেশ থেকে সংবাদদাতা আবশ্যক।
ভায়োলেট হালদার
প্রধান সম্পাদক
[email protected]

গল্প-কবিতা সহ বিবিধ সাহিত্য রচনা প্রসঙ্গে ইমেইল করুন।
লিটন রাকিব
সাহিত্য সম্পাদক
[email protected]

- বিজ্ঞাপন -

সর্বাধিক পঠিত

সদ্য প্রকাশিত

লেখা কপি করার অনুমতি নেই, লিংক শেয়ার করুন।