তীব্র কণ্ঠে বলি, কোকিয়ে ওঠা, নদী এবং অন্যান্য কবিতা

জয়িতা চট্টোপাধ্যায়
জয়িতা চট্টোপাধ্যায়
2 মিনিটে পড়ুন
সাময়িকী আর্কাইভ

তীব্র কণ্ঠে বলি

চোখের নীচে গভীর কালো ক্লান্তি
সেই হাত আজ স্বর্গপুরে
যার স্পর্শে আমি হারিয়ে যেতাম
ব্যর্থ প্রেমিকের মতো আমার চিবুকের রেখা
হাত বাড়িয়ে রেখেছি লেখা নেই
মাইল মাইল শূন্যতা রেখে দিলাম
অঝোর ধারায় বৃষ্টি নামে হৃদয়ের আকাশে
জলের প্রবাহে তেজী স্রোত
হৃদয়ে প্রশান্তের ছোঁয়া
আধো আলো আধো ছায়ার মতন
কান্ডহীন গাছের পল্লবিত মাথা
করছে আমায় রোদ
আমার সকল স্বপ্ন বিলীন হয়ে যাবে হৃদয়ের রক্তক্ষরণে
অভিমানের অশরীরী হওয়ায়
মেঘগুলো সব ঝরে পড়ে
ভিজিয়ে দেয় শুকনো হৃদয়
কান্নার মতো আশা যাওয়ায়।।

তীব্র কণ্ঠে বলি, কোকিয়ে ওঠা, নদী এবং অন্যান্য কবিতা
তীব্র কণ্ঠে বলি, কোকিয়ে ওঠা, নদী এবং অন্যান্য কবিতা 41

কোকিয়ে ওঠা

পাথর ভেঙ্গে যাচ্ছে নিরন্তর
তবু জল কই নোনা জলের প্লাবন
বিচ্ছিন্ন সমতল
ভেসে যায় ঊর্ধ্বমুখী চাওয়া
ভেসে যায় বই
প্রার্থনার ভেতর বয়ে যায় রক্ত
গোপন থাকে সমস্ত রেখা
পাথরে পাথর ভাঙে
ভেঙ্গে যায় সমস্ত মন্ত্র শেখা।।

নদী

আমি এঁকেছি নদীটিকে
দেখেছি বুকের ভেতর আছড়ে পড়ছে দাপুটে নদী
তুমি তাকিও থাকো অর্বাচীন শিশুর মতন
চৌকাঠ থেকে দূরত্বে আয়না দেখা যায় যদি
নদী রূপসী হয়েছে, ঘর থেকে বার
তার অবাধ যাতায়াত
তুমি জানো নি কে কাকে ঘিরে ধরে
কাকে উড়িয়ে দেয় অমোঘ বিশ্বাস।।

নক্ষত্র পুড়ে যাচ্ছে

তুমি পাতার ভেতর একটা নক্ষত্র পুড়ে যাচ্ছে রোজ
ঠাঠা দুপুর খুঁজছে একটা শীতল সন্ধ্যা
ব্যার্থ প্রেমের চিঠিটা ই নয় হোক
গোলাপী চিঠি খুঁজে নেয় কাঁপন বাঁশির মুখ
বাতাসের বুক চিরে উড়ে যায় রংধনু
উড়ে যায় সোনালী আলোর সুখ
কত ব্যর্থ প্রেম মনে রেখেছিল চোখ
নদীকে বাঁধতে চেয়েছিল পুরনো প্রেমের শোক
ঘুম মন্ত্রের পাশে চৌকাঠ ছুঁয়ে ছিল গান
আনন্দ আঙুল অসাড় হয়েছে,
অসাড় হয়েছে প্রাণ।।

- বিজ্ঞাপন -
তীব্র কণ্ঠে বলি, কোকিয়ে ওঠা, নদী এবং অন্যান্য কবিতা
তীব্র কণ্ঠে বলি, কোকিয়ে ওঠা, নদী এবং অন্যান্য কবিতা 42

কিছু দাগ নিয়ে

জানি না তোমাকে পেছন থেকে ডাক দিয়ে যায় কিনা আমি নামের অস্তরাগ
আমি তো শানিয়ে নিয়েছি নিজেকে সেই অস্তরাগে
নিবিড় আচ্ছাদনে ঢাকা দিয়ে রাখি সূর্যের মুখ
আজ ও তবু তোমাকেই চাঁদ ভাবি
ভাবতে ভাবতে গড়িয়ে যাচ্ছি কিছু দাগ নিয়ে।।

তীব্র কণ্ঠে বলি, কোকিয়ে ওঠা, নদী এবং অন্যান্য কবিতা
তীব্র কণ্ঠে বলি, কোকিয়ে ওঠা, নদী এবং অন্যান্য কবিতা 43

পিপাসা

আমার পিপাসাটুকু রেখে গেছি তোমার ঘরে
তুমি ও তাকে রেখেছে ঢাকনা আটকে
তার সামনে বসো তুমি রোজ গালে হাত দিয়ে
তাকিয়ে থাকো দিনের পর দিন আমার পিপাসার দিকে,
আমার দূরে চলে যাওয়া তোমার নজর এড়িয়ে।।

গুগল নিউজে সাময়িকীকে অনুসরণ করুন 👉 গুগল নিউজ গুগল নিউজ

এই নিবন্ধটি শেয়ার করুন
কবি। পশ্চিমবঙ্গ, ভারত।
একটি মন্তব্য করুন

প্রবেশ করুন

পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?

পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?

আপনার অ্যাকাউন্টের ইমেইল বা ইউজারনেম লিখুন, আমরা আপনাকে পাসওয়ার্ড পুনরায় সেট করার জন্য একটি লিঙ্ক পাঠাব।

আপনার পাসওয়ার্ড পুনরায় সেট করার লিঙ্কটি অবৈধ বা মেয়াদোত্তীর্ণ বলে মনে হচ্ছে।

প্রবেশ করুন

Privacy Policy

Add to Collection

No Collections

Here you'll find all collections you've created before.

লেখা কপি করার অনুমতি নাই, লিংক শেয়ার করুন ইচ্ছে মতো!