-0.5 C
Drøbak
মঙ্গলবার, জানুয়ারী ২৫, ২০২২
প্রথম পাতাসাম্প্রতিকহাফ ভাড়া নিয়ে বৈঠকের দ্বিতীয় দিনেও আসেনি সিদ্ধান্ত

হাফ ভাড়া নিয়ে বৈঠকের দ্বিতীয় দিনেও আসেনি সিদ্ধান্ত

বাসে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া নিয়ে মালিকপক্ষের সঙ্গে সরকারের দ্বিতীয়বারের বৈঠকেও কোনো সিদ্ধান্ত আসেনি। তবে সড়ক পরিবহন মালিক-শ্রমিকসহ সরকারের সংশ্লিষ্ট সব মন্ত্রণালয়কে সমন্বিত করে একটি টাস্কফোর্স কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত হয়েছে। সেই কমিটির মাধ্যমে বেশ কিছু দা‌বি-দাওয়া পূরণ হ‌লে পরবর্তী বৈঠ‌কে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হবে বলে জানা গেছে।

শনিবার বেলা পৌনে ১২টার দিকে রাজধানীর বনানীতে বিআরটিএর প্রধান কার্যালয়ের সেমিনার কক্ষে এই বৈঠক শুরু হয়। দেড় ঘণ্টার বে‌শি সময় ধ‌রে চলা বৈঠ‌কে পরিবহন নেতাদের পক্ষ থেকে বিআরটিএকে টাস্কফোর্স গঠনসহ বেশ কয়েকটি প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে।

বিআরটিএ চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ মজুমদার ব‌লেন, শিক্ষার্থী‌দের জন্য ভাড়া কমানোর বিষ‌য়ে বিআর‌টিএ অত্যন্ত আন্ত‌রিক। বৈঠ‌কে বেশ কিছু বিষয় উঠে এ‌সে‌ছে। পরিবহন নেতাদের পক্ষ থেকে টাস্কফোর্স গঠনসহ বেশ কয়েকটি প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। প্রস্তাবগুলো বিবেচনায় নিয়ে পরে সিদ্ধান্ত হবে।

বৈঠক শেষে ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েত উল্লাহ সাংবাদিকদের বলেন, শিক্ষার্থীদের দাবি যৌক্তিকভাবে সমাধানে চেষ্টা চলছে। ঢাকার ৮০ শতাংশ বাস মালিক গরিব। হাফ ভাড়া নিলে মালিকদের যে ক্ষতি হবে, তা সরকার কীভাবে পূরণ করবে? সেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে। আমরা কিছু প্রস্তাব দিয়েছি। সবার সমন্বয়ে টাস্কফোর্স গঠনের প্রস্তাব দিয়েছি।

এই পরিবহন নেতা বলেন, হাফ ভাড়ার দাবিতে বাস ভাঙচুর, শ্রমিকদের মারধর অব্যাহত রয়েছে। শিক্ষার্থীদের প্রতি অনুরোধ থাকবে, তারা যেন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ফিরে যায়।

আলোচনায় ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সভাপতি আব্দুল বাতেন বাবু, সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েত উল্যাহ, বিআরটির চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ মজুমদার, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) সহকারী কমিশনার মো. আশফাক, বিআরটিএর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাসহ বাস মালিক সমিতি ও শ্রমিক ফেডারেশনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) শিক্ষার্থীদের হাফ পাসের বিষয়ে অংশীজনদের সঙ্গে বৈঠকে বসে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)। দেড় ঘণ্টাব্যাপী বৈঠকে শিক্ষার্থীদের হাফ পাসের আলোচনা হলেও পরিবহন মালিকদের দ্বিমতের কারণে কোনো সিদ্ধান্ত আসেনি। অর্ধেক ভাড়া নিতে রাজি ছিলেন না পরিবহন মালিকরা। পরে সিদ্ধান্ত ছাড়াই শেষ হয় বৈঠকটি।

সেই বৈঠক শেষে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব মো. নজরুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, ‘শিক্ষার্থীরা বাসে হাফ ভাড়ার দাবিতে আন্দোলন করছেন। তাদের এই দাবিকে গুরুত্ব দিয়ে আমরা সমস্যা সমাধানে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।’

এদিকে গতকাল শুক্রবার সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানান, রাষ্ট্রায়ত্ত বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশন-বিআরটিসির বাসে আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে শিক্ষার্থীরা ৫০ শতাংশ ভাড়ায় যাতায়াত করতে পারবে। সামাজিক দায়বদ্ধতা এবং শিক্ষার্থীদের দাবির প্রতি সংবেদনশীল থেকে পরিবহন মালিকরা ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নেবেন বলে আশা করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী।

অন্যান্য নিবন্ধসমূহ

সংবাদদাতা এবং লেখা আবশ্যক

নরওয়ে থেকে প্রকাশিত একমাত্র বাংলা পত্রিকা ‘সাময়িকী’ পত্রিকার জন্য বাংলাদেশ সহ বিশ্বের অন্যান্য দেশ থেকে সংবাদদাতা আবশ্যক।
ভায়োলেট হালদার
প্রধান সম্পাদক
[email protected]

গল্প-কবিতা সহ বিবিধ সাহিত্য রচনা প্রসঙ্গে ইমেইল করুন।
লিটন রাকিব
সাহিত্য সম্পাদক
[email protected]

- বিজ্ঞাপন -

সর্বাধিক পঠিত

সদ্য প্রকাশিত

লেখা কপি করার অনুমতি নেই, লিংক শেয়ার করুন।