18.3 C
Drøbak
শনিবার, জুলাই ২, ২০২২
প্রথম পাতাসামাজিক ন্যায়বিচারঘটনার আগে করা বরিশালের ইউএনও-ওসির স্বাভাবিক বদলির আদেশ কার্যকর করার মাধ্যমেই চলছে...

ঘটনার আগে করা বরিশালের ইউএনও-ওসির স্বাভাবিক বদলির আদেশ কার্যকর করার মাধ্যমেই চলছে আপোষ-মিমাংসার দ্বিতীয় পর্যায়

গ্রেফতারকৃতদের জামিনের আবেদন মঙ্গলবারও করা হয়নি।

বরিশাল সদর উপজেলার ইউএনও মুনিবুর রহমান ও কোতোয়ালী থানার ওসি নুরুল ইসলামের বদলী আদেশ হয়েছিলো বুধবার ১৮ আগষ্ট রাতে সংঘটিত আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীদের সাথে সংঘাতের আগেই ১০ এবং ১৭ই আগষ্ট।

এ ব্যাপারে পুলিশ ও জেলা প্রশাসনের সূত্রে জানা গেছে এখন তাদের সে আদেশ কার্যকর করার মাধ্যমে চলছে আপোষ-মিমাংসার দ্বিতীয় পর্যায় বাস্তবায়নের কাজ।

ইউএনও’র বদলির বিষয়ে বরিশাল জেলা প্রশাসক (ডিসি) জসীম উদ্দীন হায়দার জানিয়েছেন, ইউএনও মুনিবর রহমানের বদলি তার ইচ্ছায় গত ১০ আগস্ট হয়েছে। কিন্তু সদর উপজেলার এসিল্যান্ড করোনা আক্রান্ত থাকায় তাকে কাজ চালিয়ে নিতে বলা হয়েছে। তিনি সুস্থ হয়ে কাজে যোগ দিলেই ইউএনও তার কাছে দায়িত্ব বুঝিয়ে দিয়ে চলে যাবেন। কাজেই ইউএনওর বদলি স্বাভাবিক এবং শীগগীরই তা কার্যকর হবে। এর সাথে ১৮ আগষ্ট রাতের ঘটনার কোন সম্পর্ক নেই।

এদিকে, গত ১৬ আগস্ট বরিশাল কোতোয়ালি থানার ওসি নুরুল ইসলামকে সিলেট রেঞ্জে বদলি করা হয়। ১৮ তারিখ সকালেই তিনি স্থানীয় সাংবাদিকদের জানিয়ে ছিলেন, যেকোনও সময় তিনি বরিশাল ছাড়তে পারেন। বরিশালের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার এনামুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় তার বদলি হয়েছে।

এদিকে বুধবার ১৮ আগষ্ট রাতে সরকারী দলের নেতা-কর্মীদের সাথে ইউএনও কমপ্লেক্সের নিরাপত্তা-কর্মী আনসারদের সংঘাত এবং সরকারী দলের ক্যাডারদের ইউএনও’র বাসভবন আক্রমনের পর খবর দিয়ে আনা পুলিশের সাথে সংঘাতের পর ১৯ আগষ্ট এব্যাপারে ইউএনও এবং পুলিশের পক্ষ হতে মোট ১২২ জর নামধরা এবং পাঁচশতাধিক অজ্ঞÍনামা আসামীর বিরুদ্ধে দুটি মামলা করা হয়।

এর তিনদিন পর থানা মামলা নেয়নি বলে কারণ দেখিয়ে আদালতে প্রশাসন ও পুলিশের বিরুদ্ধে পাল্টা নালিশী মামলা করা হয় আওয়ামী লীগের নেতা এবং বিসিসির কর্মকর্তার পক্ষ হতে। আদালত এ দরখাস্ত গ্রহন করে তদন্তের মাধ্যমে এক মাসের মধ্যে রিপোর্ট দেয়ার আদশ দেন পুলিশ ব্যুরো অফ ইনভেষ্টিগেশন (পিবিআই) কে।

এ বিষয়ে রোববার ২২ আগস্ট রাতে মেয়র, জেলা প্রশাসন ও পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে বরিশাল বিভাগীয় কমিশনারের বাসভবনে সমঝোতা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বিষয়টিকে ভুল বোঝাবুঝি হিসেবে উভয় পক্ষ মেনে নেওয়ায় সবার মুখে হাসি ফোটে। তবে এ বৈঠকে ইউএনও উপস্থিত ছিলেন না।

বিভাগীয় কমিশনারের বাস ভবনে সরকারী দল ও সরকারী কর্মকর্তাদের এ আপোষ-মিমাংসার বৈঠকে শহরে শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষা, নাগরিক সেবা অব্যাহত রাখা এবং আইন ও বিচার ব্যবস্থার উপর আস্থা রাখতে উভয় পক্ষ সম্মত হয়।

সভায় উপস্থিত থাকা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তালুকদার মো. ইউনুস বলেছিলেন, ‘ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল। সেই ভুল বোঝাবুঝির অবসান হয়েছে। আর যাতে এ ধরনের ঘটনা না ঘটে এ বিষয়ে বিশদ আলোচনা হয়েছে।’

বৈঠকের বিষয়ে ইউএনও মুনিবুর রহমান বলেন, ‘আমাকে বৈঠকে ডাকা হয়নি। তবে সেখানে আমার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। তারা যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সেটা আমারও সিদ্ধান্ত।’

এ সবের পরিপ্রেক্ষিতে ২৩ আগষ্ট হতে শহরে উত্তেজনা প্রশমন এবং জীবন যাত্রা স্বাভাবিক হয়ে আসে। তাই এরপর ২৪ আগষ্ট মঙ্গলবার আটক সরকারী দলের নেতা কর্মীদের জামিনের বিষয়ে শুনানী হবে মনে করে সংবাদকর্মীরা আদালতে ভীড় জমালেও, কোন জামিন আবেদন করা হয়নি বলে জানা যায়।

জেলা আওয়ামী লীগ সম্পাদক এড.তালুকদার মো: ইউনুস জানান, ঢাকা থেকে কেন্দ্রীয় নির্দেশনা পেলেই তারা জামিনের আবেদন করবেন। তবে একটি সূত্র জানিয়েছে দুই মামলার বাদী ইতপূর্বে বদলী হওয়া ইউএনও এবং পুলিশকর্মকর্তার বরিশাল ত্যাগের পরই তারা আটক কর্মীদের জামিনের আবেদন করবেন।

প্রসঙ্গত, ১৮ আগস্ট রাত সাড়ে ১০টায় বরিশাল সিটি করপোরেশনের ২০ থেকে ২৫ জন কর্মচারী নগরের সিঅ্যান্ডবি রোডে উপজেলা পরিষদ এলাকায় গিয়ে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতার শুভেচ্ছা ব্যানার অপসারণের কাজ শুরু করে।

এ সময় ইউএনও-এর কার্যালয় ও সরকারি বাসভবনের নিরাপত্তায় নিয়োজিত আনসার সদস্যরা তাদের পরিচয় জানতে চান। তারা সকালে এসে কাজ করার জন্য বলেন। এ সময় সিটি করপোরেশনের কর্মচারীদের সঙ্গে দায়িত্বরত আনসার সদস্যদের বাগবিতন্ডা হয়।

বর পেয়ে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের শতাধিক নেতাকর্মী সেখানে যান। পরে সেখানে আনসার সদস্যদের সঙ্গে তাদের কথা কাটাকাটি হয়। সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহও সেখানে উপস্থিত হন।

এ সময় নেতাকর্মীরা ইউএনও-এর বাসায় ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে গুলি ছোড়েন আনসার সদস্যরা। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে পুলিশও সেখানে আসে। হামলা ও সংঘর্ষে এবং লাঠিচার্জে কমপক্ষে ৩০ জন আহত হন।

অন্যান্য নিবন্ধসমূহ

সংবাদদাতা এবং লেখা আবশ্যক

নরওয়ে থেকে প্রকাশিত একমাত্র বাংলা পত্রিকা ‘সাময়িকী’ পত্রিকার জন্য বাংলাদেশ সহ বিশ্বের অন্যান্য দেশ থেকে সংবাদদাতা আবশ্যক।
ভায়োলেট হালদার
প্রধান সম্পাদক
[email protected]

গল্প-কবিতা সহ বিবিধ সাহিত্য রচনা প্রসঙ্গে ইমেইল করুন।
লিটন রাকিব
সাহিত্য সম্পাদক
[email protected]

- বিজ্ঞাপন -

সর্বাধিক পঠিত

সদ্য প্রকাশিত

লেখা কপি করার অনুমতি নেই, লিংক শেয়ার করুন।