9.3 C
Drøbak
সোমবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০২১
প্রথম পাতাসাম্প্রতিককলাপাড়ায় মসজিদের জন্য ইউপি চেয়ারম্যানের সম্মতিতে একটি প্রভাবশালী মহল

কলাপাড়ায় মসজিদের জন্য ইউপি চেয়ারম্যানের সম্মতিতে একটি প্রভাবশালী মহল

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় রাতের আঁধারে রাস্তার পাশের গাছ কেটে নিয়েছে একটি প্রভাবশালী মহল। রবিবার মধ্যরাতে ধানখালী ইউনিয়নের লোন্দা গ্রামের রাস্তার পাশের এসব সরকারী গাছ কেটে নিলেও বন বিভাগ এনিয়ে কোন পদক্ষেপ না নেয়ায় স্থানীয়দের মাঝে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে।

জানা যায়, উপজেলার ধানখালী ইউনিয়নের লোন্দা খেয়াঘাট হতে কলেজ বাজার পর্যন্ত রাস্তার দু’পাশে বিভিন্ন প্রজাতির বড় বড় গাছ রয়েছে। গাছগুলো স্থানীয়রাই রক্ষণাবেক্ষণ করে আসছে। রবিবার মধ্যরাতে স্থানীয় হানিফ পঞ্চায়েত বাড়ির সামনের তিনটি বড় সাইজের মেহগনি গাছ স্থানীয় প্রভাবশালী তুহিন মৃধা তার লোকজন নিয়ে রাতের আধাঁরে কেটে নেয়। রাস্তার পাশের এ গাছ কাটা নিয়ে স্থানীয়দের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

হানিফ পঞ্চায়েত’র মা ষাটোর্ধ চান বরু বলেন, ‘আজ হতে ২০-২৫ বছর আগে এ গাছগুলো আমি নিজের হাতে লাগিয়েছি। কিন্তু এগুলো এভাবে রাতের আধাঁরে কেটেনেয়ায় ভীষন কষ্ট পেয়েছি। এগুলোতে আমাদের হক রয়েছে। কিন্তু তুহিন মৃধা গায়ের জোরে সেগুলো কেটে নিয়েছে।’

এ বিষয়ে তুহিন মৃধার কাছে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘মসজিদের জন্য ইউপি চেয়ারম্যানের সম্মতিতে গাছগুলো কেটেছি। এনিয়ে নিউজ না করার জন্য তিনি অনুরোধ করেন।’

ধানখালী ইউপি চেয়ারম্যান মো. রিয়াজ উদ্দিন তালুকদার বলেন, ‘তুহিন মৃধাকে আমি গাছ কাটতে বলিনি। তুহিন মৃধা গাছ কাটলে তার বিরুদ্ধে আইনী পদক্ষেপ নিতে অনুরোধ করেন তিনি।’

বনবিভাগের কলাপাড়া রেঞ্জ কর্মকর্তা আ: সালাম তার ব্যবহৃত মুঠো ফোন বন্ধ
করে রাখায় এ বিষয়ে তার কোন বক্তব্য জানা যায়নি।

অন্যান্য নিবন্ধসমূহ

সংবাদদাতা এবং লেখা আবশ্যক

নরওয়ে থেকে প্রকাশিত একমাত্র বাংলা পত্রিকা ‘সাময়িকী’ পত্রিকার জন্য বাংলাদেশ সহ বিশ্বের অন্যান্য দেশ থেকে সংবাদদাতা আবশ্যক।
ভায়োলেট হালদার
প্রধান সম্পাদক
[email protected]

গল্প-কবিতা সহ বিবিধ সাহিত্য রচনা প্রসঙ্গে ইমেইল করুন।
লিটন রাকিব
সাহিত্য সম্পাদক
[email protected]

- বিজ্ঞাপন -

সর্বাধিক পঠিত

সদ্য প্রকাশিত

লেখা কপি করার অনুমতি নেই, লিংক শেয়ার করুন।