10.2 C
Oslo
রবিবার, মে ১৬, ২০২১
প্রথম পাতাসাম্প্রতিকনাটোরের সাইকেল স্ট্যান্ট বালক মুন্না

নাটোরের সাইকেল স্ট্যান্ট বালক মুন্না

বিকাল হতেই নাটোর শহরের লালবাজারের রাস্তায় দেখা মেলে এক স্কুল পড়–য়া ছেলের। সঙ্গী তার বাইসাইকেল। দেখে মনে হয় তার কথা মত চলে সাইকেল। কখনও সাইকেলের আসনের চাকা শূন্যে আবার কখনও দু’হাত প্রসারিত করে দু পা সাইকেলের প্যাডেল ছাড়া কিন্তু সাইকেল চলছে। রাস্তায় চলাচলকারী অনেকেই অবাক হয়ে চেয়ে থাকে আবার কেউবা মুঠোফোনে ভিডিও করে নেয় সুযোগ বুঝে। ছেলেটির নাম মুন্না। সে নাটোর গ্রীণ একাডেমী কেজি এ্যান্ড হাই স্কুলের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র। মুন্না নাটোরের লালবাজারের Natore Extreme Stunterz নামে একটি বাই সাইকেল স্ট্যান্ট গ্রুপের সদস্য।

জানা গেছে, Natore Extreme Stunterz নামে এই গ্রুপে ত্রিশ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটিও আছে। গ্রুপের সদস্যরা প্রতিদিন বাবু শংকর গোবিন্দ চৌধুরী স্টেডিয়ামের সামনে তারা অনুশীলন করে। মুন্নার সঙ্গে কথা বলে জানা যায় তাদের অনুশীলনের জন্য কোন জায়গা নেই। স্টেডিয়ামের সামনে তারা অনুশীলন করতে গেলে প্রথমে তাদের নিষেধ করা হয়। পরবর্তীতে আবারও মেলে অনুমতি।

কমিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. আলমঙ্গীর হোসেন আকাশ জানান, যারা স্ট্যান্ট করে তারা বেশির ভাগই নাটোর সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র। তাদের কোন প্রশিক্ষক নেই। তাদের শেখা বলতে ইন্টারনেট থেকে ভিডিও দেখে।

কমিটির সভাপতি রিফাত মাহমুদ জানান, ২০১৫ সালে তাদের কমিটি গঠন করা হয়। তারা স্টেডিয়ামের সামনে অনুশীলন করে। অনুশীলন শুরুর পরে নিষেধাজ্ঞার কারণে বেশ কিছু দিন অনুশীলন বন্ধ ছিল পরে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুমতি মিললে আবারও অনুশীলন শুরু হয়।

বাইসাইকেল স্ট্যান্ট এশিয়ার অনেক দেশেরই জাতীয় খেলা।নাটোরের ছেলেদের জন্য একজন প্রশিক্ষক প্রয়োজন। এজন্য জেলা প্রশাসকের কাছে অনুশীলনের জন্য নির্ধারিত জায়গা এবং প্রতিযোগিতা মূলক অবস্থান তৈরীর আহ্বাবান জানান সাইকেল স্ট্যান্ট বালকেরা।

সম্পর্কিত নিবন্ধসমূহ

সংবাদদাতা আবশ্যক

নরওয়ে থেকে প্রকাশিত একমাত্র বাংলা পত্রিকা ‘সাময়িকী ডট কম’ পত্রিকার জন্য বাংলাদেশ সহ বিশ্বের অন্যান্য দেশ থেকে সংবাদদাতা আবশ্যক।
আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন।
আমাদের ইমেইল ঠিকানা [email protected]

- বিজ্ঞাপন -

সর্বাধিক পঠিত

সদ্য প্রকাশিত

লেখা কপি করার অনুমতি নেই, লিংক শেয়ার করুন।