ইসরাত মৌ, সাময়িকী.কম
গত ৪ই আগস্ট আই সি সি আর ও রবিরেখার যৌথ উদ্যোগে  সত্যজিৎ রায় অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়  কবিগুরুর বর্ষার গান নিয়ে “বৃষ্টি-নেশা-ভরা সন্ধাবেলা” সঙ্গীতানুষ্ঠানটি। সাথে ছিল রবিরেখার একজন সদস্য অন্তরা সাহার প্রথম রবীন্দ্র সঙ্গীতের  সিডি “অন্তরালে”এর আত্মপ্রকাশ ঘটে রাগা মিউজিক কোম্পানি থেকে। সম্পূর্ণ অনুষ্ঠানের বিশেষ অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শ্রীকান্ত চক্রবর্তী এবং জয়তী  চক্রবর্তী।সঙ্গে ছিলেন রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভাগীয় প্রধান ইন্দ্রানী ঘোষ শিক্ষক-শিক্ষিকা মৃগাঙ্ক সরকার,উপালী চট্টোপাধ্যায়, তপশ্রী দাস, সৌরভ চক্রবর্তী সহ আরও অনেকে। প্রথম পর্বে “অন্তরালে” মোড়ক উন্মোচন এর সাথে অথিতিদের রবিরেখার লোগো সম্বলিত মামেনটো, ফুলের গাছ ও একটি করে সিডি সম্মাননায় দেওয়া হয়। এরপরে শুরু হয় রবিরেখার মূল অনুষ্ঠান ““বৃষ্টি-নেশা-ভরা সন্ধ্যাবেলা”।মোট ১৬ টি গান পরিবেশন  করে শিল্পীরা এর মধ্যে ৩টি সমবেত সঙ্গীতের সাথে ছিল নৃত্য। এই তরুণ তরুণীরা অসাধারণ দক্ষতার সাথে সম্পূর্ণ করে তাদের অনুষ্ঠানটি।গত ৭ই আগস্ট ডিডি বাংলায় ক্যামেরা চলছে অনুষ্ঠানে এই অনুষ্ঠানটি সম্প্রচারিত হয়।এই অনুষ্ঠানটিকে সাফল্যময় করতে যারা অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন তারা হল রবিরেখার  শিল্পী ও সদস্য- সত্যজিৎ ঘোষ, শুভঙ্কর মণ্ডল, ইসরাত মৌ, আঁখি রায়, অন্তরা সাহা, শর্মিতা দত্ত, প্রণয় কর্মকার, কৃষ্ণেন্দু বিকাশ বেরা, রাখি আদক, নম্রতা ভট্টাচার্য্য। ভাষ্যপাঠ সঞ্চালনায়- নিমাই মণ্ডল ও অন্তরা সেন, যন্ত্রানুসঙ্গে ছিলেন- তবলায়- পার্থ মুখোপাধ্যায়, কিবোর্ড- সুব্রত মুখোপাধ্যায়, এস্রাজ ও সারেঙ্গী- দেবাশীষ হালদার, বাঁশী- সোমনাথ দাস, পারকাশান-সব্যসাচী মুখোপাধ্যায়।নৃত্য- ইসতিয়াক ইমরান ও মানোমী অর্থি, রবিরেখা লোগো- বিশ্বজিৎ বাপ্পি এবং কার্ড ডিজাইন- অসীম চন্দ্র রায়।

ভবিষ্যতে রবিরেখা এইভাবে তাদের পদযাত্রাকে সাফল্যময় করবে এবং ভবিষ্যত প্রজন্মকে রবীদ্রনাথের আদর্শের সাথে পরিচয় ঘটাবে তাই সকলের প্রত্যাশা। 

ইসরাত মৌ, কলকাতা, ভারত থেকে

Author Name

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.