রফিকুল ইসলাম সাগর 
সাময়িকী.কম

অনেকেই বাড়ীর ছাদে কবুতর অথবা পাখি পালন করেন। এবং অনেকেই বাড়ীতে কবুতর ও পাখি পালন করে স্বাবলম্বী। তেমনি একজন সফল কবুতর পালনকারী ঢাকার মো: হুমায়ূন কবির। কবুতর পালার চরম সখ তার ছোট বেলা থেকেই ছিল। বাটারা হারুনুর রশিদ সড়কে তার নিজ বাড়ীর ছাদে সিরিয়াস ভাবে কবুতর পালন শুরু করেন ২০১০ সাল থেকে।

তিনি জানান, তার বর্তমান বয়স ৪০ বছর। এ পর্যন্ত অনেক ব্যবসা করেছেন কিন্তু কোনটিতেই আলোর মুখ দেখতে পাননি। একমাত্র কবুতর ও পাখি পালন করে তিনি লাভবান। শুরু করেছিলেন ৫০,০০০টাকার কবুতর কিনে। পর্যায়ক্রমে সেগুলো থেকে কবুতর বাড়তে থাকে। 
বর্তমানে কবিরের খামারে প্রায় ১৫০ জোড়া কবুতর রয়েছে। স্থানীয় এবং দেশের বিভিন্ন প্রান্তের কবুতর ব্যবসায়ীরা বিভিন্ন জাতের কবুতর ক্রয়ের জন্য তার খামারে আসে।

হুমায়ূন কবির জানায়, তার খামারে গ্রিবাজ- চিলা, কার্জি, সবুজ গলা, ঝাক ও রেসার প্রজাতির কবুতর সহ ১৬টি ঘু ঘু পাখি রয়েছে। এগুলোর বাজার মূল্য ১০০০ টাকা থেকে শুরু করে ৫০,০০০ টাকা। তিনি জানান, তার খামারে ৩০ জোড়া রেসার জাতের কবুতর আছে যেগুলোর বর্তমান বাজার মূল্য ৫০,০০০টাকা (প্রতি জোড়া)। তিনি আরও জানায়, খাবার, ঔষধ এবং অন্যান্য ব্যয় ধরে তার খামারে কবুতর ও পাখির জন্য প্রতি মাসে ব্যয় হয় চার থেকে সাড়ে চার হাজার টাকা। আর প্রতি মাসে কবুতর বিক্রি হয় ২০ থেকে ২৫ হাজার টাকা।

হুমায়ূন কবির বাংলাদেশ রেসিং পিজিয়ন ফেন্সিয়ারস ক্লাবের (বি আর পি এফ সি) সদস্য। জানা যায়, এই ক্লাবের মাধ্যমে কবুতর ও পাখির বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধের ঔষধ পাওয়া যায়। এবং কবুতর পালনের নানা রকমের শিক্ষা মূলক কর্মসূচি এই ক্লাব করে থাকে। এছাড়া এই ক্লাব থেকে প্রতি বছর জাতীয় পর্যায়ে কবুতর রেসের প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। ক্লাবের মেম্বারদের মাসিক চাদা ১০০০টাকা। কবির জানান, এ ক্লাবের মেম্বারদের কাছ থেকেই তিনি প্রথম কবুতর কিনেছিলেন।

ছবি: রফিকুল ইসলাম সাগর 
বিভাগ:

Author Name

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.