এমপিপুত্র বখতিয়ার আলম রনি
সাময়িকী.কম : ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মনিরুল ইসলাম বলেছেন, রাজধানীর নিউ ইস্কাটনে জোড়া খুন এমপিপুত্র বখতিয়ার আলম রনির করা গুলিতেই হয়েছে। পুলিশের কাছে তার যথেষ্ট প্রমাণ রয়েছে। 
বুধবার (১ জুলাই) ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের(ডিএমপি) সদর দফতরে এক ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা বলেন। মনিরুল ইসলাম বলেন, জোড়া খুনের ঘটনায় রনি জড়িত আদালতে এটি প্রমাণ করতে কোনো সমস্যা হবে না।

ডিএমপির এ মুখপাত্র বলেন, রনি চারদফায় ১৪ দিনের মতো রিমান্ডে রয়েছে। রনি যদি স্বেচ্ছায় জবানবন্দী দিতে চায় তাহলে তাকে বৃহস্পতিবার আদালতে পাঠানো হবে।

উল্লেখ্য, জোড়া খুনের মামলায় তৃতীয় দফায় দুদিনের রিমান্ডে রয়েছেন বখতিয়ার আলম রনি। মঙ্গলবার পুলিশের আবেদনের শুনানি শেষে এ রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়। ২৪ জুন সরকার দলীয় সংসদ সদস্য ও মহিলা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক পিনু খানের ছেলে রনিকে দ্বিতীয় দফায় চার দিনের রিমান্ডে নেয় ডিবি। ৯ জুন রনিকে প্রথম দফায় চার দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছিল।

প্রসঙ্গত, গত ১৩ এপ্রিল রাত ২টার দিকে রাজধানীর নিউ ইস্কাটনে রনির লাইসেন্স করা পিস্তলের গুলিতে অটোরিকশা চালক ইয়াকুব আলী ও রিকশাচালক আবদুল হাকিম আহত হন। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তাদের মৃত্যু হয়। ঘটনার দুদিন পর নিহত আব্দুল হাকিমের মা মনোয়ারা বেগম রমনা থানায় মামলঅ করেন। মামলার এজাহারে বলা হয়, একটি সাদা মাইক্রোবাস থেকে এলোপাতাড়ি গুলি ছোঁড়া হলে ওই দুজনের মৃত্যু হয়।

পরে পুলিশ তদন্ত করে জানতে পারে, সেটি ছিল কালো রঙের একটি প্রাডো গাড়ি। ওই গাড়িতে পিনু খানের ছেলে রনিসহ কয়েকজন ছিলেন। ঘটনার সময় রনি নেশাগ্রস্ত ছিলেন বলে জানা যায়।

তদন্তে রনির সংশ্লিষ্টতা পাওয়ার পর গত ৩১ মে তাকে এবং তার গাড়িচালক ইমরান ফকিরকে পুলিশ গ্রেফতার করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রনি গুলিবর্ষণের কথা স্বীকার করেন বলে তদন্ত কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

বিভাগ:

Author Name

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.