সাময়িকী.কম

রোমাঞ্চকর ম্যাচে জুভেন্টাসকে হারিয়ে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জিতেছে বার্সেলোনা। জুভেন্টাসকে ৩-১ গোলে হারিয়েছে মেসিরা। শনিবার (৬ জুন) বার্লিনের অলিম্পিক স্টেডিয়ামে চতুর্থ মিনিটে বার্সেলোনাকে এগিয়ে নেন রাকিতিচ।

ইউরোপ সেরার প্রতিযোগিতার ফাইনালে বার্সেলোনা একটি করে গোল করেন ইভান রাকিতিচ, লুইস সুয়ারেস ও নেইমার।  জুভান্টসের গোলটি আসে আলভারো মোরাতার পা থেকে।

এই জয়ের মধ্যে দিয়ে এই মৌসুমে ট্রেবল শিরোপা ঘরে তুলল বার্সা। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ছাড়া চলতি মৌসুমে কোপা ডেল রে এবং লা লিগা জিতেছে দলটি। আর এটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগে দলটির ৫ম শিরোপা।

প্রথম গোলটির স্রষ্টা মেসি বললে ভুল হবে না। প্রায় মাঝমাঠ থেকে লম্বা ক্রস করেন মেসি। সেখান থেকে এক টোকায় নেইমারকে বল দেন জর্দি আলবা। নেইমার খুঁজে পান ছুটে ডি বক্সের ভেতরে ঢুকে পড়া আন্দ্রেস ইনিয়েস্তাকে। তার পাস থেকে জানলুইজি বুফ্ফনকে পরাস্ত করে বল জালে পাঠান ক্রোয়েশিয়ার মিডফিল্ডার রাকিতিচ।

সপ্তম মিনিটে প্রথম সুযোগটি পায় জুভেন্টাস। মোরাতার পাস থেকে উপর দিয়ে মেরে ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়নদের হতাশ করেন আর্তুরো ভিদাল। পরের ছয় মিনিটে জুভেন্টাসের রক্ষণকে ভীষণ চাপে রাখে লুইস এনরিকের শিষ্যরা। ত্রয়োদশ মিনিটে ইউভেন্তুসকে কাঁপিয়ে দিয়েছিলেন দানি আলভেস। স্প্যানিশ চ্যাম্পিয়নদের এই ডিফেন্ডারের জোরালো শট কোনোমতে রক্ষা করেন বুফ্ফন।    

পিছিয়ে পড়ার পর আক্রমণ ছাড়া গতি ছিল না মাস্সিমিলিয়ানো আলেগ্রির শিষ্যদের। অসাধারণ এক মৌসুম কাটানো মেসি-সুয়ারেস-নেইমারদের সামলে আক্রমণে যাচ্ছিল তারা। মাঝমাঠ থেকে দ্রুত গতিতে উঠে সুযোগ তৈরি করছিলেন পাট্রিস এভরা, কার্লোস তেভেসরা। কিন্তু মোরাতা, ভিদালরা সেগুলো লক্ষ্যে পাঠাতে পারেননি।

২৪তম মিনিটে ক্লদিও মার্চিশিওর দূরপাল্লার আচমকা শট অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে হতাশ হতে হয় ইউভেন্তুসকে।

এগিয়ে যাওয়ার পরও আক্রমণের দিকেই ছিল বার্সেলোনার মনোযোগ। তাই রক্ষণ সামলেই আক্রমণে যেতে হচ্ছিল ইউভেন্তুসকে। আক্রমণ-প্রতি আক্রমণের প্রাণবন্ত ফুটবল উপহার দিয়ে সুযোগ পেলেই পাল্টা আক্রমণে ভীতি ছড়াচ্ছিলেন পল পগবা, তেভেস, মোরাতা, ভিদালরা। ৪০তম মিনিটে দুইবার হতাশ হতে হয় লুইস সুয়ারেসকে। প্রথমবার অল্পের জন্য লক্ষ্যে রাখতে পারেননি উরুগুয়ের এই স্ট্রাইকার। তার পরের প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে দেন ইউভেন্তুসের ৩৭ বছর বয়সী গোলরক্ষক বুফ্ফন।

৪৪তম মিনিটে একটি দুরূহ সুযোগ এসেছিল সুয়ারেসের সামনে। নেইমারের ক্রস খুঁজে পায় ডি-বক্সে অরিক্ষিত থাকা এই স্ট্রাইকারকে। বল একটু বেশি ওপরে থাকায় সেই সুযোগটি কাজে লাগাতে পারেননি তিনি।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই আবার সুযোগ আসে সুয়ারেসের সামনে। ৪৯তম মিনিটে প্রতি-আক্রমণ থেকে তার শট কর্নারের বিনিময়ে ব্যর্থ করে দেন বুফ্ফন। গোল না পেলেও এই অর্ধের শুরুতে জুভেন্টাসের রক্ষণসীমায় ভীতি ছড়ান মেসি-সুয়ারেস।

বার্সেলোনার আক্রমণের ধাক্কা সামলে ৫৫তম মিনিটে সমতা ফেরান মোরাতা। স্টেফান লিখটস্টাইনারের পাস থেকে তেভেসের জোরালো শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান বার্সেলোনার গোলরক্ষক মার্ক-আন্দ্রে টের স্টেগান। তবে শেষ রক্ষা হয়নি, ফিরতি বলে তাকে পরাস্ত করে জাল খুঁজে নেন রিয়াল মাদ্রিদের সাবেক স্ট্রাইকার মোরাতা।

ম্যাচে সমতা ফেরার পর ছন্দপতন ঘটে বার্সেলোনার খেলায়। এই সময়ে রক্ষণ সামলাতেই বেশি ব্যস্ত থাকতে হয় তাদের। মেসি-সুয়ারেসের প্রচেষ্ঠায় বিক্ষপ্ত আক্রমণে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছিল তারা। সেই চেষ্টা সফল হতে বেশি সময়ও লাগেনি। ৬৮তম মিনিটে দ্বিতীয়বার বার্সেলোনাকে এগিয়ে নেওয়ার কৃতিত্ব সুয়ারেসের। প্রায় মাঝমাঠ থেকে বল নিয়ে ডি-বক্সের ভেতর থেকে জোরালো শট নেন মেসি। ঝাঁপিয়ে তাকে ব্যর্থ করে দেন বুফ্ফন। কিন্তু ফিরতি বল জালে পাঠিয়ে উল্লাসে মাতেন সুয়ারেস।

তিন মিনিট পর বল জালে পাঠান নেইমার। আলবার ক্রস থেকে ব্রাজিলের এই তারকার হেড তার নিজের ডান হাতে লেগে বিভ্রান্ত করে ইউভেন্তুসের গোলরক্ষককে। তাই হ্যান্ডবলের জন্য বাতিল হয় এই গোল। এগিয়ে যাওয়ার পর ছন্দে ফিরে বার্সেলোনা। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে নিষ্প্রভ থাকলেও স্বরূপে ফিরেন নেইমার। তাতেই বাড়ে আক্রমণের ধার। তবে ক্ষণিকের জন্যও হাল ছাড়েনি ইতালির দলটি। ৮২তম মিনিটে দারুণ একটি সুযোগ এসেছিল জেরার্দ পিকের সামনে। বুফ্ফনকে একা পেয়েও ওপরে মেরে ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ হাতছাড়া করেন তিনি।

অবশ্য ম্যাচের পর স্কাই স্পোর্টকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বার্সেলোনা তারকা নেইমার বলেন, 'অসাধারণ সব খেলোয়াড়ের ভরা অসাধারণ এক দল জুভেন্টাস। তারা নিজেদের সেরা বলে প্রমাণকরেছে। যদিও আমরা আমাদের খেলাটা খেলেই শেষ পর্যন্ত জয় পেয়েছি'।

তবে বার্সেলোনার আরেক গোলদাতা রাকিতিচ বলেছেন, 'জুভেন্টাসকে হারানোটা এবার সহজই ছিল'। রাতের এই ম্যাচের মধ্যে দিয়ে বার্সেলোনায় ক্যারিয়ার শেষ হচ্ছে জাভি'র। এর পর থেকে তাকে দেখা যাবে যাবে কাতারের দল আল সাদের হয়ে খেলতে। কালের কন্ঠের সৌজন্যে 
বিভাগ:

Author Name

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.