সাময়িকী.কম
'বিউটিফুল মাইন্ড'-এর যাত্রা শেষ হল| চলে গেলেন জন ন্যাস। আমেরিকার নিউ জার্সিতে এক পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু হল তাঁর| বয়স হয়েছিল ৮৬ বছর| একই দুর্ঘটনায় মৃত্যু হল তাঁর স্ত্রীরও| ১৯৯৪ সালে অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার পেয়েছিলেন জন| নিউ জার্সি পুলিশ জানিয়েছে, শনিবার একটি ট্যাক্সিতে স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে যাচ্ছিলেন ন্যাস| নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ট্যাক্সিটি রাস্তার গার্ড রেলে ধাক্কা মারে| রাস্তায় ছিটকে পড়েন ন্যাস ও তাঁর স্ত্রী| পথেই মৃত্যু হয় তাঁদের| গাড়ির চালক আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি| পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনাটির তদন্ত চলছে|
এক বিচিত্র জীবন কাটিয়ে গেলেন ন্যাস| অত্যন্ত প্রতিভাধর ন্যাস-এর পিএইচডি প্রিন্সটন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে| কাজ করেছিলেন গণিতের একটি শাখা ' গেম থিওরি' নিয়ে| এই শাখায় এক বিশেষ 'ইক্যুলিব্রিয়াম'-এর ধারণা প্রতিষ্ঠা করেন তিনি| যা ' ন্যাস ইক্যুলিব্রিয়াম' নামে খ্যাতি পায়| এই ধারণাটি গণিতের গণ্ডি ছাড়িয়ে সমাজবিজ্ঞানের নানা শাখায় ব্যবহার হতে থাকে| বিশেষ করে অর্থনীতির দুনিয়ায় অত্যন্ত জনপ্রিয় এবং বহুল ব্যবহৃত হতে থাকে এটি| কিন্তু স্কিৎজোফ্রেনিয়ায় আক্রান্ত ন্যাস হারিয়ে যান হঠাত্ই| দীর্ঘ দিন রোগের সঙ্গে কঠিন লড়াই চলে তাঁর| দীর্ঘ লড়াই এর পরে সুস্থ হন ন্যাস| কাজের স্বীকৃতি হিসেবে ১৯৯৪ সালে অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার পান ন্যাস| তাঁর জীবন নিয়েই অস্কারজয়ী ছবি 'আ বিউটিফুল মাইন্ড'| ন্যাসের চরিত্রে অভিনয় করে সে বছরে অস্কারজয়ী সেরা অভিনেতা হন রাসেল ক্রো| সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা 

Author Name

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.