সুখ

তোমার ভেতরে ছোট্ট বরান্দা, এবরো থেবরো মেঠোপথ, বিচিত্র ক্যানভাস, কেবল সিঁড়ি নেই; চিন্তার চৌরাঙ্গীতে গ্রীষ্মের তপ্ত রোদ্দুর। মৃত্তিকা শিল্পের ম্রিয়মাণ আলোয় বিশ্বাসের বুলড্রেজারে মরিচীকা; ইতিকথার পরের কথা- বিমূর্ত সুখ  কোথাও নেই - নিজের ভেতরেই কেবল তা তৈরি করে নিতে হয়।


স্বপ্নের বুনট

অসুস্থ রাজনীতির ওলান ভরা প্রাগতৈহাসিক চিন্তার পসরা, বিকিনি পড়া অন্ধকারের দৌরাত্মে মধ্যবিত্তের মধ্যবিন্দু অনাদিকাল থাকে ব্যাকরণিক নিয়মের বাইরে। সব পরিচিত মুখই মুখোশের পঠনপাঠনে সিদ্ধ, শান্তির ব্যাংকে প্রত্যাশিত স্বপ্নের বুনট  রাজনৈতিক মুক্তির অন্তরালে অন্যরকম।



প্রিয়ার চুম্বন

সাদা মেঘের ভেলায় প্রিয়ার জমানো চুম্বন অস্তরেখায় ম্লান, লালিমার ভাঁজে ভাঁজে প্রেমের গোপন হিস্যা আকাশের গায়েই লেপ্টে থাকে অনাদিকাল, প্রিয়ারা আপেক্ষিকতার সূত্র মেনে চলে মনে মননে মনীষায়, লাটিমের মত জীবনে কেবলি পালাবদল, এক থেকে আরেক।


যদি একটু অভয় দিতে... কিছু বলার ইচ্ছে ছিল

তোমার চোখের ভেতর দিয়ে বিশ্ব দেখার ইচ্ছে ছিল- অনুভূতির সমুদ্রে স্নান করার বাসনা লালন করছি শতাব্দিকাল থেকে - ধূতির রঙের মত সাদামেঘ অবলীলায় আল্পনা এঁকে যায় তোমার শুশ্রী মুখে ; পৃথিবীর সব কামিনী ফুল গন্ধ ছড়াতে ভুলে যায় তোমার রূপের জৌলুস্য দেখে- তোমার চাহনিতে হার মানে পৃথিবীর সব সাজানো মুগ্ধতা- তুমি জান কি - চন্দ্রের সকল স্নিগ্ধতা তোমাকে ঘিরে? তোমার শৈল্পিক দেহের আভায় সব বয়োবৃদ্ধরা ফিরে পায় হারানো যৌবন! উঠতি কিশোরেরা নতুন করে চুলে পোজ দেয়- তামাটে রঙের মেয়েরা নিচের দিকে চায়- আর কালো মেয়েরা গোপনে স্রষ্টাকে অভিশাপ দিয়ে নিজেকে প্রবোধ দেয়-যুবকেরা? তাদের কথা নাই বা বললাম ! ছায়াবৃত্তের ক্যানভাসে প্রত্যাশার দেবতার সাথে দাঁড়িয়ে ...  যদি একটু অভয় দিতে... কিছু বলার ইচ্ছে ছিল।

মুনশি আলিম
বোরহানবাগ, টিলাগড়, সিলেট

Author Name

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.