সাময়িকী.কম
ভাবছেন, আলু দিয়ে কী এমন খাবার যে আপনি আগে খান নি? আসলেই কিন্তু, আপনারা অনেকেই এই ডিশটি আগে দেখেন নি। বিশেষ করে যাদের দেশের বাইরে যাওয়া হয়নি। কেননা আমাদের দেশের রেস্তরাঁয় এই খাবারটি মেলে না। আমরা সাধারণত আলু ভাজি, ভর্তা কিংবা তরকারির সাথে খেয়ে থাকি। আজ রইলো এমন একটি রেসিপি যা একদিকে স্বাস্থ্যকর, তেমনই দারুণ মজাদারও বটে! আর দেখতে এত সুন্দর যে পরিবেশন করে চমকে দিতে পারবেন অতিথিকে।
ওভেনে বেক করে আলু খাওয়াটা আমরা এখনো শিখে উঠতে পারিনি। তবে জেনে রাখুন, তেলে ডিপ ফ্রাই করলে আলু যতটা অস্বাস্থ্যকর একটা খাবারে পরিণত হয়, ওভেনে তেল ছাড়া বা অল্প তেলে বেক করলে হয়ে ওঠে ঠিক ততটাই স্বাস্থ্যকর।
ওজন বাড়ার ভয়টা তো কমেই যায়, সাথে পুষ্টিগুণটাও থাকে অটুট। আসুন, আজ দেখি ওভেনে বেকড আলুর একটি রেসিপি, কিন্তু ভিন্ন স্বাদ ও অসাধারণ চেহারায়। সাধারণ আলু কে কত অসাধারণ হয়ে উঠতে পারে, দেখে নিন নিজেই।

উপকরণ-

দুটি বড় আলু
মাখন ১ টেবিল চামচ
লবণ
কালো গোলমরিচ গুঁড়ো
চীজ স্প্রেড বা হোয়াইট সস (যেটা আপনার ভালো লাগে)
পাতলা কেটে ডিপ ফ্রাই করা সসেজ (গারনিশের জন্য)
প্যাপরিকা পাউডার
লেবুর রস
পুদিনা পাতার মিহি কুচি ইচ্ছামত
স্প্রিং অনিয়ন ইচ্ছামত

প্রণালি-

  • -আলুকে ছিলে নিতে পারেন। কিংবা নতুন আলু হলে করতে পারেন খোসা সহই। তবে যেটাই করুন না কেন, আলুকে অন্তত এক ঘণ্টা পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। তারপর খুব ভালো করে ডলে ডলে ধুয়ে নিন।
  • -এরপর আলুকে কাটার পালা। ছুরি দিলে আলুকে পাতলা স্লাইস করুন, কিন্তু ঠিক পুরোটা কাটবেন না। শেষ প্রান্তে গিয়ে আর কাটবেন না। আলু স্লাইস হবে, কিন্তু পরস্পরের সাথে লেগে থাকবে। ছবিটা একটু লক্ষ্য করুন, তাতেই বুঝে যাবেন।
  • -এবার এই আলুতে ভালো করে লবণ, প্যাপরিকা পাউডার ও মাখন মাখান। প্রত্যেক স্লাইসের ভাজে ভাজে মাখান। এবং পুদিনা পাতার মিহি কুচিও ভাঁজে ভাঁজে দিয়ে নিন।
  • -এবার একটি বেকিং ট্রে-তে আলুগুলো রেখে প্রি হিট করা ওভেনে ১৮০ ডিগ্রি তাপমাত্রায় বেক করুন। নিচের র‍্যাকে রাখবেন। আলু লাল লাল হয়ে গেলে বুঝবেন তৈরি করে গেছে। আলুর আকৃতির ওপরে নির্ভর করে সময় লাগবে।
  • -বের করে ডিশে সাজিয়ে নিন। পরে হোয়াইট সস বা চিজ স্প্রেড ছড়িয়ে দিন। গারনিশ করুন ভাজা সসেজ ও স্প্রিং অনিয়ন দিয়ে।
ছবি কৃতজ্ঞতা- কেয়া আখতার

Author Name

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.