সাময়িকী.কম
স্বাস্থ্যবান চুলের জন্য চাই কিছু প্রয়োজনীয় উপাদান যেমন ভিটামিন সি, ই, বি-৬, বি-৮ ও এইচ, জিঙ্ক, ম্যাগনেসিয়াম এবং সালফার। এই উপাদানগুলো চুলের পুষ্টি জুগিয়ে চুলকে করে তোলে স্বাস্থ্যবান আর ঝলমলে। চুলের স্বাস্থ্য রক্ষার্থে কখনই সোডিয়াম সালফেটযুক্ত শ্যাম্পু ব্যবহার করা উচিৎ না। তবে এমন কিছু প্রাকৃতিক উপাদান সম্পর্কে জেনে নিন যেগুলো চুলের স্বাস্থ্য রক্ষা করে চুলকে ঝলমলে করে তুলতে সহায়তা করে।

১. কমলা :

কমলার রস তৈলাক্ত চুল এবং খুসকি দূর করতে সহায়তা করে থাকে। এই কমলার রস চুলের স্বাস্থ্য রক্ষার্থেও সাহায্য করে থাকে। এক্ষেত্রে অলিভ অয়েলের সাথে কমলার রস মিশিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করে সপ্তাহে ২ বার চুলে ব্যবহারে ভালো ফলাফল পাওয়া যায়।

২. তিসি :

তিসি এমনই একটি উপকারী শস্যবীজ যা আমাদের সামগ্রিক স্বাস্থ্য বিন্যাসে সাহায্য করে থাকে। তবে ৩ টেবিল চামচ তিসি গরম পানিতে মিশিয়ে তা ৫ দিন চুলে ব্যবহারে চুল স্বাস্থ্যজ্জ্বল হয়ে ওঠে। এটি সরাসরি মাথার তালুতেও ব্যবহার করা যেতে পারে।

৩. নারিকেল তেল :

নারিকেল তেল হালকা গরম করে মাথার তালুতে ব্যবহারে চুল পড়া রোধ হয় এবং মাথা ঠান্ডা থাকে। এটি মাথার রক্ত চলাচল স্বাভাবিক করে। এই প্রাকৃতিক উপাদানটি মাথায় ম্যাসেজ করার পর ভেজা গরম তোয়ালে দিয়ে মাথা প্রায় আধা ঘণ্টা ঢেকে রাখতে পারেন। সপ্তাহে ২ দিন এভাবে ব্যবহারে এটি চুলের স্বাস্থ্য রক্ষা করে থাকে এবং চুলের উজ্জ্বলতা বাড়িয়ে তোলে।

৪. অলিভ অয়েল :

বহু প্রাচীনকাল থেকেই অলিভ অয়েল বিভিন্ন কারণে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এই প্রাকৃতিক উপাদানটি এমনি অথবা মধুর সাথে নিয়মিত মাথার তালুতে ব্যবহারে চুল পড়া রোধ করে ও চুলের স্বাস্থ্য রক্ষা করে চুলের গ্রোথ বাড়িয়ে দেয়।

৫. আভাকাডো :

পাকা আপেলের সাথে আভাকাডোর মিশ্রণ চুলের গ্রোথ বাড়াতে সহায়তা করে। এই মিশ্রণটি মাথার তালুতে ৩০ মিনিট ব্যবহারে স্বাস্থ্যোজ্জ্বল চুল পাওয়া সম্ভব।

৬. অ্যালোভেরা :

অ্যালোভেরা একটি রোগ নিরাময়কারী উপাদান। অ্যালোভেরার রস চুলের জন্য বেশ পুষ্টিকর। এক চামচ অ্যালোভেরার রস মাথার তালুতে এক ঘণ্টা রাখলে তা চুল পড়া রোধ করে চুলের উর্বরতা বৃদ্ধি করে, চুলের স্বাস্থ্যগুণ বাড়িয়ে দেয়।

৭. মেথি :

মেথি চুলের জন্য অত্যন্ত উপযোগী একটি প্রাকৃতিক উপাদান। মেথি দিলে চুল পড়া রোধ করে, উজ্জ্বলতা আর মসৃণতা ফিরে আসে। এর জন্য ২-৩ চামচ মেথিদানা ১০ ঘণ্টা পানিতে ভিজিয়ে রেখে মিহি করে বেটে নিতে পারেন। এরপরে এটি চুলে মেখে ৩০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। এতে চুলের স্বাস্থ্য রক্ষা পাবে।
তথ্যসূত্র : naturalon.com

Author Name

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.