সাময়িকী.কম

ঢাকা : ইসলামী ছাত্রশিবিরের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি শফিকুল ইসলাম মাসুদসহ জামায়াত-শিবিরের ১৯ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের জাকির হোসেন রোডের একটি বাসা থেকে তাদের গ্রেফতার করে মোহাম্মদপুর থানা পুলিশ।

আটকদের মধ্যে শিবিরের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সভাপতি ও বর্তমানে জামায়াতে ইসলামীর কর্মপরিষদের সদস্য শফিকুল ইসলাম ছাড়াও অন্যদের মধ্যে রয়েছেন জামায়াতের মোহাম্মদপুর থানা আমির জিয়াউল আহসান এবং একই শাখার সেক্রেটারি শফিউর রহমান।

তাদের বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট কোনো অভিযোগের কথা পুলিশ না বললেও আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে জানানো হয়েছে।

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিজুল ইসলাম সাময়িকী ডটকমকে বলেন, আটককৃতরা সেখানে গোপনে মিটিং করছিল, এমন তথ্যের ভিত্তিতে ওই বাড়িতে অভিযান চালানো হয়।

ছাত্র শিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি আবদুল জব্বার ও সেক্রেটারি জেনারেল আতিকুর রহমান এ ঘটনার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন। নেতাদের ওপর নির্যাতন বন্ধে সরকারের প্রতি কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন তারা।  

গণমাধ্যমে পাঠানো যৌথ বিবৃতিতে তারা বলেছেন, “লজ্জাজনক পরিণতির আশঙ্কায় সরকার রাষ্ট্রিয় যন্ত্র ব্যবহার করে দমন নিপিড়ণের পথ বেছে নিয়েছে। সম্পুর্ণ অন্যায়ভাবে সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সরকার আশু আন্দোলনের ভয়ে ভীত হয়েই নতুন করে আবার গ্রেফতার নির্যাতনের পথ বেছে নিয়েছে।”

সরকারের প্রতি হুশিয়ার করে তারা আরো বলেন, “দীর্ঘদিন যাবৎ আমাদের নেতৃবৃন্দের ওপর নির্যাতনের স্টিমরোলার চালানোর পরেও আমাদের নেতা কর্মীরা ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছে। কিন্তু একজন নিরপরাধ নেতার ওপর এমন অবিচার অব্যাহত থাকলে নেতাকর্মীদের ধৈর্যের বাধ ভেঙ্গে যাবে। অবিলম্বে তাকে মুক্তি দিতে হবে। অন্যথায় ছাত্রশিবির অবিচারের বিরুদ্ধে কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করতে বাধ্য হবে। আর তখন যেকোনো পরিস্থিতির জন্য প্রশাসনকে দায়ী থাকতে হবে।”
বিভাগ:

Author Name

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.