রফিকুল ইসলাম সাগর
সাময়িকী.কম
ছবি : সংগৃহীত

ঢাকা: রোববার রাতের আকাশে যে চাঁদ তার আকার স্বাভাবিকের চেয়ে কয়েকগুন বড়। আজ রাতের চাঁদ যেন বেড়াতে এসেছে পৃথিবীর অনেকটা কাছে। মেলে ধরেছে তার পূর্বের চেয়েও আরো আকর্ষনীয় রূপ।

আগস্ট সুপারমুন নাইট আজ। তাই বছরের দ্বিতীয় সুপারমুন দেখার সুযোগ পাচ্ছে দেশবাসী। সুপারমুন হচ্ছে কক্ষপথে পৃথিবী ও চাঁদের নিকট অবস্থানে সংঘটিত পূর্ণিমা। জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা এর নাম দিয়েছেন সুপারমুন। জ্যোতির্বিজ্ঞানের ভাষায়, প্রতি ১৪টি চান্দ্র মাস সম্পন্ন হওয়ার পর একটি সুপারমুন ঘটে। একটি সুপারমুন সংঘটিত হওয়ার পর ১৫তম পূর্ণিমাটি হচ্ছে সুপারমুন। আর এটি খালিচোখেই পর্যবেক্ষণ করা সম্ভব।

বাংলাদেশ সময় রাত ১২টা ১০ মিনিটে রাজধানী বনানীর আকাশ মেঘলা থাকলেও চাঁদটাকে দেখা গেছে স্পষ্ট। স্বাভাবিকের চেয়ে অনেক বড় একটা চাঁদ উজ্জল হয়ে আছে। বিরল এক মহাজাগতিক দৃশ্য অবলোকন করতে পারল জগৎবাসী।

আজ চাঁদ পৃথিবী থেকে ৩ লাখ ৫৬ হাজার ৮৯৬ কিলোমিটার দূরত্বে অবস্থান করছে।

চলতি মৌসুমে তিনবার এ সুপারমুন দেখা যাবে বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। আগামী ৯ সেপ্টেম্বর আবারও তা দেখা যাবে। গত জুলাই মাসে বছরের প্রথম সুপারমুন দেখা যায়। এর আগে ২০১৩ সালের ২৩ জুন পৃথিবী থেকে সবচেয়ে কম দূরত্বে (৩,৫৬,৯৯১ কিলোমিটার) অবস্থান করে চাঁদ।

জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, এ বছরের পর সুপারমুন আবার দেখতে বিশ্ববাসীকে আরও এক বছর অপেক্ষা করতে হবে। ২০১৫ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর চাঁদ পৃথিবীর আরও কাছাকাছি অবস্থান করবে। সে সময় পৃথিবী থেকে এর দূরত্ব হবে ৩ লাখ ৫৬ হাজার ৮৭৭ কিলোমিটার।

পরবর্তী বছর অর্থাৎ ২০১৬ সালে পৃথিবীর আরও কাছে চলে আসবে চাঁদ। ওই বছরের ১৪ নভেম্বরের সুপারমুনে পৃথিবী থেকে চাঁদের দূরত্ব হবে তিন লাখ ৫৬ হাজার ৫০৯ কিলোমিটার। এর ১৮ বছর পর অর্থাৎ ২০৩৪ সালের ২৫ নভেম্বর চাঁদ পৃথিবীর আরও কাছাকাছি অবস্থান করবে বলে জানিয়েছেন জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা।
বিভাগ:

Author Name

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.