হৃদয়হীন

আমার শরীরের ভেতরে একটা পিঁপড়া ঢুকেছে
সে হৃদয়টাকে কুঁড়ে কুঁড়ে খাচ্ছে
এক প্রান্ত থেকে খেতে খেতে চলছে হৃদয়ের অন্য প্রান্তে
একসময় হৃদয়টা খাওয়া শেষ হবে পিঁপড়াটার
আমি আজীবন বেঁচে থাকব হৃদয়হীন হয়ে...
.....................

পৃথিবীর বুকের ভেতর

অমীমাংসিত সময়ের জানালায়
জীবনটা যদি পাখি হয়ে বসতো
তবে তোমার হাত ধরে একবার
হেঁটে যেতাম পৃথিবীর বুকের ভেতর...
নদীর চোরাবালি কান্নার পথ কেটেছিল বলে
বুকের খাঁচাটা বেমালুম ভুলে গেল পথিকের কথা
পাখির কথাটা ভুলেছিল আর কিছু কাল পরে
মোচড়ানো স্মৃতির কোল ঘেঁষে বসে
হাপরের শব্দেকে নিঃশ্বাস ভেবে বেঁচেছিলাম
কান্নার মুখটা স্বযতনে তুলে এনে
সময়ের জানালায় ছড়িয়ে দিয়ে অপেক্ষায় আছি
জীবন পাখিটার দেখা পেলেই
তোমার হাত ধরে ঠিক হারিয়ে যাব
পৃথিবীর বুকের ভেতর পায়ের খোঁজে .....
........................


অনুরোধের চিরকুট

কান্নার মুখকে বলো,
যেদিন আমার পায়ের ছাপে জন্মাবে
একটি পূর্ণ করবী গাছ
সে দিন কান্নার মুখে ঢেলে দিব
ইতিহাসের মন্ত্র...
ভালবাসার প্রাণ চেখে দেখে
নিলামে তুলেছিলাম পৃথিবীর সব সুখ
তবু পাওয়া হল না
কান্নার মুখকে বলো,
যেদিন আমার চোখের কোটরে বাসা বাঁধবে
দুটো হলুদ পাখির ছানা
আমি কালঘড়ির দেহ থেকে তুলে আনবো
সময়ের রক্তফেনা...

Author Name

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.