সাময়িকী.কম
বাংলাদেশে নিযুক্ত নতুন মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শিয়া স্টিফেন্স ব্লুম বার্নিকাট-কে আল্লাহর ওয়াস্তে মুখ বন্ধ রাখতে বলেছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।

নতুন মার্কিন রাষ্ট্রদূতের উদ্দেশে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘নতুন রাষ্ট্রদূত মহোদয় আমাদের আবার নির্বাচন করার পরামর্শ দিয়েছেন। পরামর্শ দেওয়ার আগে আপনি (রাষ্ট্রদূত) বেগম খালেদা জিয়াকে জঙ্গিবাদ, জামায়াত-হেফাজতের সঙ্গে দহরম মহরম না করার পরামর্শ দেন। যদি পরামর্শ না দিতে পারেন, তাহলে আল্লাহর ওয়াস্তে মুখটা বন্ধ রাখবেন।’

শনিবার সন্ধ্যায় কুষ্টিয়ায় এক ইফতার মাহফিলে তিনি এসব কথা বলেন। বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশনের (বিএমএ) কুষ্টিয়া শাখা এই ইফতার মাহফিলের আয়োজন করেন।

এসময় তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘কোনো দলের মুখপাত্র হিসেবে কাজ করার জন্যে মার্কিন সরকার আপনাকে (রাষ্ট্রদূত) এখানে (বাংলাদেশে) পাঠায়নি।’

অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক সৈয়দ বেলাল হোসেন, কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ইফতেখার মাহমুদ, কুষ্টিয়া বিএমের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল হক রতন, পুলিশ সুপার মফিজ উদ্দীন আহম্মেদ ও চিকিত্সকেরা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকালে কুষ্টিয়া সার্কিট হাউসে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তথ্যমন্ত্রী ৫ জানুয়ারির নির্বাচন নিয়ে ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূতের মন্তব্যের জবাবে বলেন, ‘৫ জানুয়ারির নির্বাচন সংবিধান ও আইনসম্মত। আর নির্বাচনে কেউ না আসলে নির্বাচন ত্রুটিপূর্ণ হয়, এ কথাটা আমরা মানি না।’

নির্বাচন নিয়ে কথা বলার আগে বেগম খালেদা জিয়াকে জামায়াত, হেফাজত, অন্তর্ঘাত ও নাশকতা ত্যাগ করার পরামর্শ দিন। ইনু জানান এটাই তার জন্য মঙ্গলজনক হবে।

ইনু আরও বলেন, যদি বেগম খালেদা জিয়াকে নাশকতা, অন্তর্ঘাত এবং জঙ্গীবাদীদের ত্যাগ করার পরামর্শ না দিতে পারেন তবে বাংলাদেশের গণতন্ত্র ও সাংবিধানিক প্রক্রিয়া আমরাই রক্ষা করতে পারবো।

ইনু বলেন, ৫ জানুয়ারির নির্বাচন ছিল সংবিধান ও আইনসম্মত। নির্বাচনে কেউ না আসলে নির্বাচন ত্রুটিপূর্ণ হয় এই কথাটা আমরা মানি না। বাংলাদেশে নির্বাচন নিয়ে যারা মাথা ঘামাচ্ছেন, বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে যখন নাশকতা ও অন্তর্ঘাতের তাণ্ডব চলছিল সেই সময় এসব কূটনীতিক ও বুদ্ধিজীবীরা কোথায় ছিলেন?

উল্লেখ্য মার্শিয়া স্টিফেন্স ব্লুম বার্নিকাট যুক্তরাষ্ট্র সিনেটে পররাষ্ট্র সম্পর্ক কমিটির সম্মুখে বলেন, বাংলাদেশে ৫ জানুয়ারির সংসদীয় নির্বাচন নিঃসন্দেহে ত্রুটিপূর্ণ ছিল এবং বাংলাদেশের রাজনৈতিক দলগুলোকে জরুরি ভিত্তিতে গঠনমূলক সংলাপে অংশগ্রহণ করা দরকার, যা আরও প্রতিনিধিত্বমূলক সরকার গঠনের দিকে এগিয়ে যাবে।

Author Name

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.