আচ্ছা নিজেকে একটি প্রশ্ন করুন তো, আজকের দিনে আপনি অন্য একজনের মুখে হাসি এনে দেয়ার জন্য কী করেছেন, কিংবা অন্য একজনের মুখে কি হাসি এনে দিতে পেরেছেন? অনেকেই চিন্তায় পড়ে যাবেন আসলেই এমন কিছু করেছেন কিনা। কারণ আমরা আমাদের নিজেদের কাজ ও জীবন নিয়ে এতো বেশি ব্যস্ত থাকি যে অন্য একজন মানুষ হেসেছেন কিনা তা দেখার মতো সময় আমাদের নেই।
কিন্তু তাহলে আমাদের সাথে অন্য প্রানিদের পার্থক্য কোথায়? আমরা একটু খেয়াল রাখলেই ছোট্ট কিছু কাজে অন্য একজনের মুখে এনে দিতে পারি খুব সহজে। এখানেই তো আমাদের সব চাইতে বড় পরিচয়ের দেখা মেলে। তখনই মনে হয় আমরা মানুষ।

অন্তত একজনকে একবেলা খাবার কিনে দিন

একবেলার খাবারে কতোই বা টাকা এবং সময় খরচ হবে? মাত্র একবেলার খাবার। আমরা কতো টাকা কতো অযথা কাজেও ব্যয় করে থাকি তার থেকে মাত্র ৫০ বা ১০০ টি টাকা যদি একজন ক্ষুধার্ত মানুষের মুখে হাসি এনে দিতে পারে তবেই না আমাদের জন্মের সার্থকতা পাওয়া যায়।

অন্য একজন মানুষের দিকে হাসি মুখে তাকান

আপনি হাসলে আপনার কোনো টাকা পয়সা খরচ হবে না। কিন্তু আপনার মুখের হাসি হয়তো অন্য একজনের দিকে সংক্রমিত হবে। আপনি যাকে হাসি উপহার দিলেন তিনি সেরকমই একটু হাসি উপহার দেবেন অন্য একজনকে। এভাবেই গড়ে উঠবে সুমধুর সম্পর্ক সকলের মধ্যে।

সাধ্য অনুযায়ী সাহায্য করুন

আপনার যতক্ষণ সাধ্য থাকবে ততোক্ষণ পর্যন্ত মানুষকে সাহায্য করে যাবেন। আপনার সাহায্যের পরিমাণ খুব বেশি বড় না হলেও আপনাদের মধ্যে যে সৌহার্দ গড়ে উঠবে তা হবে বেশ বড় মাপের। এছাড়াও আপনি যাকে সাহায্য করলেন তিনিও উৎসাহিত হবে অন্য কাউকে সাহায্য করার ব্যাপারে। এভাবেই সকলে একে পরের দিকে হাসিমুখে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে থাকবেন।

প্রিয়জনকে খানিকটা সময় দিন

ব্যস্ততার ভিড়েও যখন আপনি নিজের প্রিয় মানুষগুলোর জন্য খানিকটা সময় বের করে নেবেন তখন আপনার আপন মানুষগুলোর মুখের হাসিই আপনাকে করে তুলবে একেবারে চাঙ্গা। আপনি হয়তো খুব বেশি সময় বের করতে পারলেন না কিন্তু এতেই আপনার আপন মানুষগুলোর মুখে ফুটবে হাসি।

‘প্লিজ’ বলা এবং ‘ধন্যবাদ’ দিতে শিখুন

একজন মানুষের মুখে হাসি এনে দেয়া কিন্তু খুব বেশি কষ্টের নয়। আপনি নিজের কথা দিয়েও তাদের মুখে এনে দিতে পারেন এক টুকরো মধুমাখা হাসি। ছোট বা বড় কারো সাথে কথা বলার মাঝে প্রয়োজনে প্লিজ এবং ধন্যবাদ দিতে শিখুন। সে যিনিই হোক না কেন তাকে কোনো কাজে সাহায্য করতে কিংবা করতে বললে প্লিজ বলুন। এবং ধন্যবাদ দিতে ভুলে যাবেন না একেবারেই। দেখবেন আপনার মুখের এই দুটি কথাতেই অনেকের মুখে দেখতে পাবেন হাসি।

Author Name

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.