নায়িকা মানেই জন্ম থেকেই স্লিম আর সুন্দর? ধারণাটা একদম ভুল। এমন অনেক নায়িকাই আছেন যারা এককালে ছিলেন রীতিমত "মোটা" মানুষ। তেমনই একজন সোনম কাপুর। নিজের মুখেই বলেছেন যে কোন এক সময়ে এক সাথে ৪০টি সিঙ্গারা খেতে পারতেন তিনি। ৯০ কেজির সেই "টেডি বিয়ার" থেকে ৫৫ কেজির "হট" নায়িকা কীভাবে হলেন? আছে দারুণ মজার এক গল্প। সেই সাথে রইলো সোনম কাপুরের ওজন কম করার সিক্রেট ফর্মুলা, ডায়েট চার্ট ও কিছু দারুণ টিপস!
৯০ কেজি থেকে ৫৫ কেজিতে পরিণত হওয়ার পেছনের কাহিনী
সিঙ্গাপুরে ২ বছরের জন্য ফিল্ম এবং আর্ট থিয়েটারের উপর পড়াশোনা করতে যান সোনম কাপুর। সেই সময়ে চকলেট, আইসক্রিম, ভাজা-পোড়ার মতো খাবার খেয়ে আবার ব্যায়াম ছাড়াই দুই বছর কাটিয়ে দেন তিনি। কাজেই যা হওয়ার কথা ছিল তাই হলো। মুটিয়ে গেলেন সোনম।
কিন্তু এখানেই শেষ নয়, দু’বছর পর ইন্ডিয়ায় এসে যখন সঞ্জয় লীলা বানসালির ‘ব্ল্যাক’ চলচ্চিত্রে সহকারী পরিচালকের কাজে ব্যস্ত, তখন বানসালির একটি কথাই পুরো বদলে দেয় সোনম কাপুরের জীবন। কথাটি ছিল এরকম- তুমিতো বেশ সুন্দরী, কিন্তু মোটা। যদি ওজন কমাতে পারো তবে অবশ্যই তোমাকে নিয়ে আমি একটি সিনেমা বানাব।
সঞ্জয় লীলা বানসালির মতো একজন পরিচালকের এমন প্রস্তাবে কি বসে থাকতে পারেন কেউ, কাজেই মেদ ঝরাতে মাঠে নেমে পড়েন সোনম কাপুর।
এক বছরের লম্বা সময় ধরে মা সুনিতা কাপুর এবং ট্রেইনারের কড়া শাসনের মধ্যে থাকতে হয়েছে এই তারকাকে। সবচেয়ে প্রিয় চকলেট, আইসক্রিম, এবং তেলে ভাজা খাবারগুলো পাশে থাকতেও বেছে নিতে হয়েছে স্বাস্থ্যকর ফলমূলকে। এদিকে ওজন কমিয়ে পাতলা হওয়ার সংকল্পে নামা সোনম দিনে কখনই ছয় বারের বেশী আহার করেন না।
দিন শুরু হয় যেভাবে
প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে মর্নিং ওয়াকে বেড়িয়ে পড়েন এই অভিনেত্রী। এরপর ৩০মিনিট যোগব্যায়াম এবং মেডিটেশন করেন। তার কিছুক্ষন পরে আবারও ৩০ মিনিটের জন্য কার্ডিও ভাস্কুলার ব্যায়াম করে থাকেন। এদিকে নাচতেও বেশ ভালবাসেন সোনম কাপুর। তাই সময় পেলেই ফুল ভলিউমে গান ছেড়ে নাচায় মগ্ন থাকেন এই অভিনেত্রী।
তবে সাঁতার কাটার জন্য প্রতিদিন শুটিং,ডাবিংয়ের থেকে কিছুসময় বের করে নেন সোনম। খেলাধুলাতেও বেশ আগ্রহ রয়েছে এই নায়িকার, যতই ব্যস্ততা থাকুক না কেন সপ্তাহে অন্তত দুটো দিন স্কোয়াশ খেলতে যান তিনি।
ডায়েট চার্ট
চকলেট এবং আইসক্রিমে আসক্ত বলিউড সেলিব্রেটি সোনম কাপুর স্বীকার করেন আজকের আকর্ষণীয় সোনম শুধুমাত্র তার মায়ের বদৌলতে। সুন্দর ফিগার ধরে রাখতে তার মা-ই সবচেয়ে বেশী কাজ করে থাকেন। তিনি সোনমের জন্য নিজ থেকে তৈরি করেন একটি আদর্শ ডায়েট চার্ট। এবং এই ডায়েট চার্ট অনুসরন করেই সোনম কাপুর ৩৫ কেজি ওজন কমিয়ে ফেলেন। ভক্তদের সুবিধার্থে সোনম কাপুরের ডায়েট চার্টটি তুলে ধরা হল। কে জানে এই চার্টটি অনুসরণ করে আপানিও হয়ে যেতে পারেন সোনম মতই আকর্ষণীয়।
সকালের নাস্তা: ফলের সাথে কনফ্লেক্স।
সকাল এবং দুপুরের মাঝামাঝি সময়ে: ব্রাউন ব্রেডের সাথে মুরগির ডিমের সাদা অংশ এবং প্রোটিন শেক।
দুপুরের খাবার: ডাল, ভাজি, রুটি এবং গ্রিল্ড চিকেন।
বিকালের হালকা-পাতলা নাস্তা: বিকালের নাস্তা হিসেবে সব সময় নিজের সাথে রাখেন কিছু ড্রাই ফ্রুটস।
শুটিংয়ের ব্যস্ততার ফাঁকে ফাঁকে ক্ষুধা যন্ত্রণা থেকে পরিত্রান পেতে সোনম কাপুরের নিত্যদিনের সঙ্গী এই ড্রাই ফ্রুটস।
রাতের খাবার: মাছ,মাংস, সালাদ, স্যুপ ইত্যাদি।
সোনম কাপুরের দেয়া কিছু হেলথ টিপস:
দিনে ৩ বার খাওয়ার প্রবণতাকে বাদ দিয়ে দু’ঘণ্টা পরপর অল্প পরিমানে খাওয়ার অভ্যাস করতে হবে। খাওয়ায় পরিবর্তন আনার পাশাপাশি দিনে ব্যায়াম করার অভ্যাস করা উচিত। এবং মেদ ঝোড়ানোর ক্ষেত্রে কখনোই শর্টকাট পন্থা অবলম্বণ করা উচিত নয়। নিজের হৃৎপিণ্ডটিকে সুস্থ রাখতে অবশ্যই প্রতিদিন ব্যায়াম প্রত্যেকের করা উচিত।

Author Name

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.