গতবছর মুক্তি পাওয়া তাঁর 'কাম ব্যাক' ছবি 'ইশ্‌ক ইন প্যারিস' বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়েছিল। তবু কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের মালকিন হিসেবে তাঁর হাসি মুখের ছবি আইপিএল মৌসুমে প্রায়ই দেখা যায়। সম্প্রতি বলিউডে তাঁর সফরের নানা আঙ্গিক ট্যুইটারে তুলে ধরলেন প্রীতি জিনতা। নায়িকা জীবনের প্রথম দিকে তাঁর লড়াই, তাঁর বিতর্কিত প্রেম কাহিনি সবই বয়ান করলেন তিনি নিজের মুখেই।
তাঁর ট্যুইটে প্রীতি জানিয়েছেন কী ভাবে তিনি বলিউডে আসেন। একদিন বড় তারকা হবেন, এমনটা কখনও ভাবেননি বলে জানিয়েছেন তিনি। সিনেমায় অভিনয় তাঁর কাছে নেহাতই একটা চাকরি ছাড়া আর কিছু ছিল না বলেও জানিয়েছেন তিনি। ট্যুইটারে প্রীতি বলেছেন, "আমি যখন সিনেমা করা শুরু করি, তখন তারকা হওয়ার কথা মাথাতেও ছিল না। এটা ছিল আমার কাছে শুধুই একটা চাকরির মতো। নিজের কাজটা ঠিকমতো করে আমি অর্থনৈতিক ভাবে স্বাধীন হতে চেয়েছিলাম।"
তবে অভিনেত্রী হওয়ার পরই তাঁর জীবন বদলে যায় বলে জানিয়েছেন প্রীতি। প্রীতির ট্যুইট: "যেই আমি বিখ্যাত হলাম, আমি আসলে কে, তা ভুলে যেতে হলো। সেলিব্রিটি ইমেজ ধরে রাখার জন্য নিজের অন্য একটা ছবি তুলে ধরতে হলো। আমার চারপাশের মানুষজনও দ্রুত বদলে গেল। প্রতিদিন নিজের একটা সর্বাঙ্গসুন্দর ছবি আমাকে ধরে রাখতে হত। আমাকে ঘিরে সবার ব্যবহারও বদলে গেল। আমার বয়স হতে নেই, মন খারাপ হতে নেই। এই আমিটার সঙ্গে আসল আমির প্রতিদিন লড়াই হত।"
তিনি এ কথাও বলেছেন, যে সব পুরুষরা তাঁকে 'ডেট' করতে চাইতেন, তাঁদের বিষয়ে হীনম্মন্যতায় ভুগতেন। ইগোতে আক্রান্ত হয়ে পড়তেন। বুঝতে পারতেন যে নিজের থেকে বিখ্যাত মেয়েকে নিজের মতো চালনা করা সহজ হবে না। বিখ্যাত হওয়ার অনেক অসুবিধা ও বিপত্তির কথাও ট্যুইট করেছেন প্রীতি। অনেক বিকৃতমনস্ক পুরুষ তাঁর ইমেজ ও সম্মান ক্ষতিগ্রস্ত করার চেষ্টা করেছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। "বিকৃতমনস্করা অর্ধনগ্ন দেহের ছবির উপর আমার মুখ বসিয়ে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দিয়েছে। আমাকে অসম্মানিত করার চেষ্টা করেছে। কিন্তু আমাকে সব সময় মনে রাখতে হয়েছে যে আমি তারকা। এ নিয়ে আমি অভিযোগ জানাতে পারব না।"
সূত্র- কালের কণ্ঠ

Author Name

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.