কর্মক্ষেত্রে প্রত্যেক মানুষেরই একজন বন্ধুর প্রয়োজন হয়। মনের কথাগুলো সবসময়ই মানুষ অন্যের সাথে বিনিময় করতে চায়। অফিসের বিভিন্ন কাজের বিষয়ে কিংবা সহায়তার জন্যও মাঝে মাঝে অফিসে একজন কাছের মানুষের প্রয়োজন পড়ে। কিন্তু আপনার সহকর্মী যদি হয় একজন ঝগড়াটে পুরুষ বা মহিলা তবে কি তার সাথে মনের কথা কিংবা অন্য যে কোন কথা কি বিনিময় করা যাবে?
যেসব মানুষ একজনের কথা অন্য মানুষের সাথে বলাবলি করে কিংবা মানুষের সম্পর্কে বানিয়ে বানিয়ে কথা বলে থাকে তাদের সাথে সম্পর্ক তৈরি করার চেয়ে না করাই অধিকতর শ্রেয়।
এখন কথা হচ্ছে আপনি কিভাবে বুঝবেন কার সাথে মনের কথা শেয়ার করা যাবে আর কার সাথে করা যাবে না? কি ধরণের কথা সহকর্মীর সাথে বিনিময় করা যাবে কি ধরণের কথা বিনিময় করা যাবে না?
আসুন কিছু আদর্শ বিষয় জেনে নিই। কি ধরণের সহকর্মীর সাথে মনের কথা বিনিময় করা যাবে? কি ধরণের কথা কোন সহকর্মীর সাথেই বলা যাবে না তা এ বিষয়গুলো থেকে জানা যাবে। চাকরিজীবী মানুষদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ এ পরামর্শ দিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।
  • সহকর্মীর সাথে কখনোই আপনার বস সম্পর্কে অভিযোগ করা যাবে না। যদি সে আপনার সবচেয়ে কাছের মানুষও হয়ে থাকে তবুও বসকে নিয়ে খোশগল্প করা যাবে না। বসকে নিয়ে খোশগল্প করলে যেকোনো সময় আপনার বিপদ নেমে আসতে পারে। সুতরাং এ বিষয়ে অবশ্যই সচেতন আপনাকে সচেতন হতে হবে।
  • নিজের ব্যাক্তিগত সমস্যাগুলো সহকর্মীদের সাথে বলা থেকে বিরত থাকুন। আপনার যদি কঠিন কোন আসুখও হয়ে থাকে কেউ আপনার কাছে এ বিষয়ে জানতে না চাইলে এ বিষয়ে আপনার বলার প্রয়োজন নেই।
  • আপনি যদি আপনার কোন সহকর্মীর জীবনের উল্লেখযোগ্য কোন গোপন ঘটনা জেনে থাকেন তবে কোন অবস্থাতেই তা অন্যের সাথে শেয়ার করার প্রয়োজন নেই। আপনার যত কাছের বন্ধুই হোক না কেন অবশ্যই এ ধরণের কথা আলোচনা করা থেকে বিরত থাকুন।
বিভাগ:

Author Name

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.