খাবার নষ্ট করতে কে চায় বলুন? এতো দাম দিয়ে একটা খাবার কেনা হলে সেটা নষ্ট করতেও তো খারাপ লাগে। আর তাই সবাই চেষ্টা করে পরিশিষ্ট খাবারও কোনো কাজে ব্যবহার করে ফেলতে। খাবার নষ্ট না করে সেটাকে ব্যবহার করে ফেলা যায় অন্য কোনো উপায়ে। আসুন জেনে নেয়া যাক খাবার নষ্ট না করে পরিশিষ্ট খাবার ব্যবহারের ৭টি টিপস।
১) অনেক সময় বয়াম খালি হয়ে যাওয়ার পর বয়ামের গায়ে নিউটেলা বা নোসিলা লেগে থাকে। এক্ষেত্রে বয়ামে গরম দুধ ঢেলে ভালো করে ঝাকিয়ে নিন। বয়ামে লেগে থাকা চকলেটটা মিশে দিয়ে চকলেট মিল্ক হয়ে যাবে। এবার সেটা মজা করে খেয়ে ফেলুন।
২) মেয়োনেজের বয়ামে মেয়োনেজ লেগে থাকলেও সেটার ভেতরে সালাদ বা লেটুস পাতা ভরে ভালো করে মাখিয়ে নিন শেষ মেয়োনেজটুকুও।
৩) কলা অনেক বেশি পেকে গেলে অনেকেই খেতে চায় না কলা। এক্ষেত্রে কলা দিয়ে কেক অথবা মিল্ক শেক বানিয়ে ফেলুন। বাড়ির সবাই মজা করে খাবে সেটা।
৪) বিস্কুটের মচমচে ভাব কমে গেলে অনেকেই সেটা ফেলে দেন তাই না? মচমচে ভাব কমে গেলে বিস্কুটটাকে বেকিং ওভেনে আরেকটু বেক করে নিন। তাহলে পুনরায় মচমচে হয়ে যাবে বিস্কুট। আর যদি সেটা ইচ্ছে না করে তাহলে সেগুলোকে ভেঙ্গে গুড়ো করে নিন। তাহলে যেসব খাবারে বিস্কুটের গুড়ো প্রয়োজন হয় সে সব খাবারে ব্যবহার করতে পারবেন।
৫) স্ট্রবেরী বেশি পেকে গেলে অনেক সময় সেটি খেতে পছন্দ করেন না অনেকেই। বেশি পাকা স্ট্রবেরী দিয়ে জ্যাম বানিয়ে ফেলুন। ঘরে তৈরী সুস্বাদু এই জ্যাম খেতে পারবেন যখন তখন।
৬) মুড়ির মচমচে ভাব কমে গেলে সেটাকে আরেকটু ভেজে নিন। আবার মচমচে হয়ে যাবে। ইচ্ছে করলে মুড়ি ভেজে সেটা দিয়ে মোয়াও বানিয়ে রাখতে পারেন।
৭) কলার দ্রুত পাকা ঠেকাতে কলার ডাটে পলিথিন পেচিয়ে রাখুন। ধীরে ধীরে পাকবে কলা।
বিভাগ: ,

Author Name

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.