নারায়ণগঞ্জের প্যানেল মেয়র নজরুল ইসলাম ও আইনজীবী চন্দন সরকারসহ সাতজনকে চাঞ্চল্যকর অপহরণের ভিডিওচিত্র পেয়েছে পুলিশ। নিহত আইনজীবী চন্দন সরকারের মোবাইল ফোনের মধ্যে এই ভিডিওচিত্র পাওয়া গেছে।
পুলিশের তদন্ত সূত্র হতে জানা যায়, এ ভিডিওচিত্র কিছুটা অস্পষ্ট। তবে এটি পাওয়ার পর আসামি শনাক্ত করতে আর কোনো বেগ পেতে হবে না।
সূত্র আরও জানা যায়, নজরুলসহ অন্যরা যখন অপহরণ হয়, তখন এ ঘটনা দেখে ফেলেন আইনজীবী চন্দন সরকার। তিনি তখনই মোবাইল ফোনে ভিডিও করতে শুরু করেন। অপহরণের ওই ভিডিওচিত্র ধারণ করার কারণেই চন্দন সরকার ও তার গাড়িচালককে তুলে নেয় অপহরণকারীরা। অপহরণকারীদের কোনো টার্গেটে ছিলেন না চন্দন সরকার।
ভিডিওচিত্রের সূত্রধরে জানা যায়, কিছুটা অস্পষ্ট ওই ভিডিওচিত্রে দেখা যায়, কয়েকজন ব্যক্তি নজরুল ও তার সহযোগীদের টেনেহিঁচড়ে গাড়িতে তুলছে। তবে ভিডিও খুবই কম সময়ের। এক মিনিটের বেশি হবে না। এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু বলতে চায়নি ওই সূত্র।
এর আগে ৩ মে চন্দন সরকারের মোবাইল ফোন ব্যবহারে জড়িত থাকায় রতন ও শিপন নামের দু'জনকে রাজধানী ঢাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের কাছ থেকেই চন্দন সরকারের নকিয়া ব্র্যান্ডের মোবাইল সেট পাওয়া যায়। তারা পেশায় প্রাইভেটকারের চালক। অপহরণের পর রাজধানীর নিকেতনে চন্দন সরকারের গাড়ি পরিত্যক্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। ওই গাড়িতে পড়ে থাকা মোবাইল সেট নিয়ে পালায় গাড়িচালক রতন। এর পর সেটি তার ভাতিজা শিপনকে দেয়। এ দু'জন ওই মোবাইল ফোনটি ব্যবহার করে। পরে তাদের গ্রেফতার করা হয়।
নারায়ণগঞ্জের প্যানেল মেয়র নজরুল ইসলামসহ সাতজনকে অপহরণের পর নির্মমভাবে খুনের ঘটনাটি অত্যন্ত সুপরিকল্পিতভাবে করা হয়েছে বলে তদন্ত কর্মকর্তারা মনে করছেন। প্রাথমিকভাবে তারা মনে করছেন, যারা অপহরণ ও খুন করেছে, তারা চৌকস (স্মার্ট) এবং প্রশিক্ষিত। এ হত্যাকাণ্ডে ২০ জন অংশ নিয়েছে বলে তদন্ত সূত্রে জানা যায়।
প্রসঙ্গত, গত ২৭ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জ থেকে একসঙ্গে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র-২ নজরুল ইসলাম, তার বন্ধু মনিরুজ্জামান স্বপন, তাজুল ইসলাম, লিটন, নজরুলের গাড়িচালক জাহাঙ্গীর আলম, আইনজীবী চন্দন কুমার সরকার এবং তার ব্যক্তিগত গাড়িচালক ইব্রাহিম অপহৃত হন।
পরে ৩০ এপ্রিল বিকেলে নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যা নদী থেকে ৬ জনের এবং ১ মে সকালে একজনের লাশ উদ্ধার করা হয়।
সূত্র: দৈনিক সমকাল

Author Name

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.