তীব্র গরম, গরম বাতাস, ধুলা বালি, দূষণ সব মিলিয়ে আপনার চুলেই অবস্থা নিশ্চয়ই হয়ে পড়েছে নিস্প্রাণ! অথবা দেখতে মোটামুটি ঠিক ঠাক থাকলেও অন্যান্য সময়ের চেয়ে হঠাৎ করেই যেন খুব বেশি বেড়ে যাচ্ছে চুল ঝরে পড়ার হার । এজন্যে আবহাওয়ার পরিবর্তন যেমন দায়ী, তেমনি আপনিও কিছুটা দায়ী। একটু সচেতন হলেই কিন্তু আপনি রুখে দিতে পারেন অকালে চুল ঝরে যাবার এই সমস্যাটা।
জেনে নিন এর কারণ ও সহজ সমাধানগুলো।

১। বার বার চুল ভেজানোঃ

এই গরমে গরম থেকে বাঁচতে অনেকেই দিনে ৪/৫ বার গোসল করেন। কিন্তু এতোবার চুল ভেজাবার ফলে চুল তার প্রাকৃতিক আর্দ্রতা হারিয়ে ফেলে। তাই হয়ে ওঠে রুক্ষ ও প্রাণহীন। তাই গোসল যতবারই করুন না কেন চুল একবারের বেশি না ভেজানোই ভালো। গোসলের সময় পানি থেকে চুল বাঁচাতে শাওয়ার ক্যাপ ব্যবহার করতে পারেন বা একটু উঁচু করে বেঁধে নিয়ে সাবধানে গোসল করুন।

২। টাইট করে চুল বাঁধাঃ

অনেকেই গরমের হাত থেকে বাঁচার জন্যে খুব শক্ত করে চুল বেঁধে রাখেন যাতে বার বার মুখে বা ঘাড়ে চুল পড়ে গরম না লাগে। কিন্তু এতে আপনি কিছুটা স্বস্তি পেলেও দীর্ঘ সময় টাইট করে চুল বেঁধে রাখায় আপনার চুলের গোঁড়া দূর্বল হয়ে পড়ে ও ঝরে পড়তে থাকে। তাই হালকা করে চুল বাঁধুন।

৩। ঘামে ভেজা চুল বেঁধে রাখাঃ

প্রচন্ড গরমে ঘামে ভেজা চুল বেঁধে রাখার কারণেও চুলের গোঁড়া স্যাঁতসেঁতে হয়ে খুশকি হতে পারে। যার ফলে চুল ঝরতে শুরু করে। তাই ঘামে ভেজা চুল বেধে রাখবেন না ভুলেও।

৪। রোদে ছাতা বা স্কার্ফ ব্যবহার না করাঃ

চুলের সব চেয়ে বড় শত্রু রোদ আর ধূলাবালি। তাই এগুলো থেকে যতটুকু সম্ভব দূরে থাকার চেষ্টা করুন। রোদে বেরুতে হলে স্কার্ফ ও ছাতা ব্যবহার করুন। ধূলা, রোদ দুটো থেকেই রেহাই পাবেন।

৫। নিয়মিত শ্যাম্পু না করাঃ

এই গরমে আবহাওয়াজনিত কারনেই ঘাম বেশী হয়, বাতাসের ধূলাবালির কারনে চুল খুব দ্রুত ময়লা হয়ে যায়। তাই চেষ্টা করুন প্রতিদিন না হলেও কমপক্ষে একদিন অন্তর শ্যাম্পু করার এবং শ্যাম্পুর পর অবশ্যই ভালো মানের কন্ডিশনার ব্যবহার করুন।
এই গরমে চুল ঝরা বা না ঝরার নিয়ন্ত্রণ থাকুন সম্পূর্ণ আপনার হাতে। গরম হোক বা শীত, সব সময়েই থাকুন প্রানবন্ত!

Author Name

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.