আমরা নানান সময়ে চুলের বিভিন্ন সমস্যায় ভুগে থাকি। চুল পড়ে যাওয়া, চুলের রুক্ষতা কিংবা খুশকি। এই সকল সমস্যাকে আমরা চুলের সাধারণ সমস্যা বলেই ধরে নেই। সত্যি বলতে এই ধরনের সাধারণ চুলের সমস্যাকে নিয়ে কেউ কখনো ভাবি না। বেশীরভাগ সময় আমরা মনে করি আমাদের যত্ন না নেয়ার ফলে আমরা চুলের সমস্যায় ভুগছি। কিংবা ভেবে থাকি আবহাওয়ার কারণে আমাদের চুলের এই সমস্যা হচ্ছে। কিন্তু আসলেই কি তাই?
আমরা নিজেরাই বুঝতে পারি না আমাদের চুলের এই সকল সমস্যা আমাদের দেহে বেড়ে ওঠা মারাত্মক কিছু রোগের লক্ষন হতে পারে। হ্যাঁ, কথাটি সত্যি। আমাদের দেহের কিছু রোগের লক্ষন দেখা দেয় চুলের সমস্যার মাধ্যমে। সঠিক সময়ে এই লক্ষণগুলো ধরতে পারলে আমরা চিকিৎসা করে রেহাই পেতে পারি মারাত্মক কিছু রোগ থেকে। চলুন দেখে নেই সেই সকল চুলের সমস্যা যা আমাদের বলে দেবে আমরা কোন রোগে ভুগছি।

চুল রুক্ষ হওয়া

আপনার চুলের দিকে ভালো করে লক্ষ্য করুন। আগের তুলনায় যদি চুলের রুক্ষতা অনেক বেশি বেড়ে থাকে তাহলে তা অবশ্যই চিন্তার বিষয়। এটি সাধারণ কোন কিছু নাও হতে পারে। কোন কারণ ছাড়া অতিরিক্ত চুল রুক্ষ হয়ে পরা হাইপোথায়রোডিসমের লক্ষন। অর্থাৎ আপনার থাইরয়েড গ্রন্থি ঠিক মত কাজ করছে না। আপনার দেহে ঠিক মত হরমোন তৈরি হচ্ছে না। আপনাকে এই সময় অবশ্যই ডাক্তারের শরণাপন্ন হতে হবে। কারণ এটি পরবর্তীতে মারাত্মক আকার ধারন করতে পারে।

চুলে খুশকি সমস্যা

চুলের খুশকির সমস্যা একটি সাধারণ সমস্যা হিসেবেই আমরা ধরে নেই। কিন্তু এই খুশকির পেছনে লুকিয়ে থাকতে পারে ‘সরিয়াসিসের’ মত মারাত্মক ত্বকের সমস্যা। সাধারণ খুশকি তেমন ক্ষতিকর না হলেও যাদের মাথায় বেশি খুশকি হয় এবং বেশ মোটা চামড়ার মত খুশকি পরে তাদের এই ধরণের রোগে আক্রান্ত হতে দেখা যায়। এটি চামড়ার একটি মারাত্মক সমস্যা যার কারণে আপনাকে অনেক দীর্ঘসময় ধরে চিকিৎসা নিতে হবে। সুতরাং দেরি না করে ডাক্তারের শরণাপন্ন হন।

অতিরিক্ত চুল পড়া

সাধারণভাবে দিনে ১০০ টি চুল পড়ে থাকে। এতে ঘাবড়ানোর কিছুই নেই। কিন্তু যদি এর চাইতে বেশি মাত্রায় চুল পড়া শুরু করে তবে তা অবশ্যই লক্ষণীয়। কারণ অতিরিক্ত চুল পড়া হতে পারে ‘পলিসটিক ওভারাইন সিনড্রোম’ যা আপনার থায়রয়েড গ্রন্থির দুর্বলতার কারণে হয়ে থাকে। এছাড়াও অতিরিক্ত চুল পড়া হৃদপিণ্ডের রোগের লক্ষন হতে পারে। দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শ গ্রহন করুন।

অতিরিক্ত ভঙ্গুর চুল

অনেকেই চুল ভাঙ্গাকে বেশি গুরুত্ব দেন না। কিন্তু এই চুল ভাঙ্গার কারণ হতে পারে আপনার দেহের প্রোটিনের মাত্রা কমে যাওয়ার লক্ষণ। দেহে প্রোটিনের অভাবের কারণে চুলের ভঙ্গুরতা বাড়ে। সুতরাং ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী খাবারে প্রোটিনের মাত্রা বাড়ান।

Author Name

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.