ভারতের লোকসভা নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয় পেয়েছে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ। ১৯৮৪ সালে রাজিব গান্ধীর বিপুল জয়ের পর, এবারই সবচেয়ে বড়ো জয় পেল কোনো নেতা। কট্টর সমর্থদের ধারণাকেও ছাপিয়ে গেছে মোদির এই বিজয়। কংগ্রেসের ইতিহাসের সবচেয়ে বড়ো ভরাডুবিও ঘটিয়ে দিলেন মোদি।
হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, ভারত এবার এমন একজন প্রধানমন্ত্রী পেতে যাচ্ছে, যিনি ক্ষমতার শুরু থেকেই পার্টি এবং সরকারের উপর সম্পূর্ণ কর্তৃত্ব বজায় রাখবেন। ১৯৭১ সালের পর ইন্দিরা গান্ধী সব চেয়ে ক্ষমতাধর হয়ে উঠেছিলেন। রাজিব গান্ধীও জনগণের প্রবল সমর্থন পেয়েছিলেন, তবে ক্ষমতায় আসার সঙ্গে সঙ্গেই ক্ষমতাধর হয়ে উঠতে পারেননি। কিন্তু মোদি একেবারে শুরু থেকেই একচ্ছত্র ক্ষমতা নিয়ে আবির্ভূত হচ্ছেন।
পত্রিকাটি আরো জানায়, সবচেয়ে বড়ো কথা- মোদি নিজেই এই বিজয়ের নায়ক।
এখন দেখার বিষয়, তিনি কি এ বিজয়কে কট্টর হিন্দুত্ববাদিতার সঙ্গে উন্নয়নের কাহিনীকে একিভূত করার জাদুকরী ফল হিসেবেই দেখছেন? বিশেষ করে রাষ্ট্রক্ষমতা হাতে পাওয়ার পরও কি তাই মনে করবেন? তার ক্ষমতায় আসার ভেতর দিয়ে সারাভারতে সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠী এবং উদার ও ধর্মনিরপেক্ষমহলে তীব্র আংশকার জন্ম দিচ্ছেন তা নিয়ে সতর্ক হবেন কি?
তবে অনেকেই মনে করেন, বিভিন্ন ক্ষেত্রে অধিক দক্ষ লোকবলের একীভূত করণ করার ভেতর দিয়ে সুশাসনই চায় ভারত।

Author Name

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.