০ গরমে হালকা মেকআপ করবেন। অতিরিক্ত মেকআপে লোমকূপ বন্ধ হয়ে যাওয়ার উপক্রম হয়। যেটা ত্বকের জন্য খুবই ক্ষতিকর। বাসায় ফিরে সাথে সাথে মেক-আপ ভেজা টিস্যু দিয়ে ঘষে ঘষে উঠিয়ে ফেলুন।
০ স্বাভাবিক সুন্দর দাগহীন ত্বকে ফাউন্ডেশন না লাগিয়ে সান ফিল্টারড অয়েল ফ্রি ময়েশ্চারাইজার লাগান। ফাউন্ডেশন লুজ পাউডারের সঙ্গে মিক্স করে ব্যবহার করুন।
০ ময়েশ্চারাইজার ক্রিম ব্যবহার করলে রক্ত চন্দন-সমৃদ্ধ ক্রিম ব্যবহার করুন। রক্ত চন্দন সান প্রটেক্টিং ফ্যাক্টর হিসেবে কাজ করে।
০ হালকা লিপ লাইনার লাগান। অল্প মাসকারা আর কোরাল বা পিংক গ্লস ব্যবহার করুন।
০ কবজি, গোড়ালি, ঘাড়, বগল এবং হাঁটুর পিছনে পারফিউম লাগান।
০ জামা কাপড়ে পারপিউম লাগাবেন না দাগ হয়ে যেতে পারে। ঘামের উপর সরাসরি পারফিউম স্প্রে করবেন না। কেমিক্যাল রিঅ্যাকশনে আরও উগ্র গন্ধ বেরোবে।
০ গোলাপ, চন্দন সমৃদ্ধ, শাওয়ার জেল, বডি শ্যাম্পু ব্যবহার করুন। এগুলোতে ন্যাচারাল কুলিং ইফেক্ট রয়েছে। শরীরকে অতিরিক্ত গরম থেকে রক্ষা করে।
০ ঘাম নিঃসরণ করে শরীর নিজেকে ঠান্ডা রাখে। এটা স্বাভাবিক ব্যাপার। খুব স্ট্রং অ্যান্টি পারস্পারেন্ট ব্যবহার করে সেটাকে বন্ধ করবেন না।
০ ঘাম শরীরে জমতে দিবেন না। তাতে ময়লা শরীরে বসে যাবে এবং ঠান্ডা লেগে যেত পারে। তাই হাওয়া লাগতে দিন শরীরে। আর টিস্যু দিয়ে গাম মুছে ফেলুন। সুগন্ধি ওয়েট টিস্যু সাথে রাখুন। গরম ট্যালকম পাউডার ব্যবহার করতে পারেন।
০ গরমে সানগ্লাস ব্যবহার করুন বাইরে বেরোলে ছাতা নিতে ভুলবেন না যেন। হালকা সুতির পোশাক পরুন। সিল্কের ড্রেস গরমে ব্যবহার করবেন না। কারণ সেটা ঘাম বাইরে বের হতে বাধা দেয় এবং ঘাম শুষে নিতে পারে না। একটু খোলামেলা চটি জুতো পরুন। ভাল ফ্যাশননেবল চম্পল যেকোনো পোশাকের সঙ্গেই দিব্যি মানিয়ে যায়। লেদার ব্যাগ না নিয়ে জুট, কটন ফ্যাব্রিক্স, বেতের ব্যাগ নিন। এগুলো যেমন ফ্যাশনেবল তেমনি ইকোফ্রেন্ডলি।
 রবিউল কমল

Author Name

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.