মধ্যে

জনপ্রিয় বাংলা গানের সুরকার আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল মারা গেছেন

বাংলাদেশের একজন সুপরিচিত গীতিকার এবং সুরকার আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল মারা গেছেন।

মঙ্গলবার ভোর চারটায় ঢাকার আফতাব নগরে হার্ট অ্যাটাকে তাঁর মৃত্যু হয়।

বাসায় হার্ট অ্যাটাক করার পর তাকে একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মি: বুলবুল গত প্রায় এক বছর ধরে নানা অসুস্থতায় ভুগছিলেন। ২০১৮ সালের জুন মাসে তাঁর হৃদযন্ত্রের ধমনীতে দুটি স্টেন্ট লাগানো হয়েছিল।

আমাকে যেন ভুলে না যাও… তাই একটা ছবি পোস্ট করে মুখটা মনে করিয়ে দিলাম।??

Posted by Ahmed Imtiaz Bulbul on Tuesday, January 1, 2019

তিনি ১৯৫৭ সালের ১ জানুয়ারি মাসে জন্মগ্রহণ করেন। অসংখ্য জনপ্রিয় গানের গীতিকার এবং সুরকার হিসেবে পরিচিত ছিলেন তিনি।

মি: বুলবুল ছিলেন একাধারে গীতিকার সুরকার এবং সংগীত পরিচালক।

বাংলাদেশের কয়েকশ চলচ্চিত্রে মি: বুলবুল সংগীত পরিচালনা করেছেন। এসব গান দর্শকদের মাঝে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

এক সময় তাঁর সুরকরা গানগুলো ছিল শ্রোতা-দর্শকদের মুখে-মুখে।

তাঁর লেখা এবং সুরকরা বহু জনপ্রিয় গানের শিল্পী ছিলেন রুনা লায়লা, সাবিনা ইয়াসমিন, অ্যান্ড্রু কিশোর, খালিদ হাসান মিলু, কনকচাঁপা এবং সামিনা চৌধুরী।

‘সব কটা জানালা খুলে দাও না’, ‘আমার বাবার মুখে প্রথম যেদিন’, ‘পড়ে না চখের পলক’, ‘আমার গরুর গাড়িতে বৌ সাজিয়ে’, ‘আম্মাজান আম্মাজান’, ‘ঘুমিয়ে থাকো গো সজনী’, ‘চিঠি লিখেছে বউ আমার’, ‘জাগো বাংলাদেশ জাগো’ – এরকম অসংখ্য জনপ্রিয় বাংলা গানের সুর করেছেন তিনি।

মি: বুলবুল মাত্র ১৫ বছরে বয়সে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন।

বাংলাদেশে সংগীতাঙ্গনে অবদানের জন্য তিনি একুশে পদক এবং জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কার পেয়েছেন।

এই নিবন্ধটি সাময়িকী সহজ জমা ফর্ম দিয়ে তৈরি করা হয়েছিল। আপনার পোস্ট তৈরি করুন!

মূল্যায়ণ করুন

Contributor

প্রদায়ক ফয়সাল কবির

আমি একজন ব্লগার, তবে নিজেকে ব্লগার হিসেবে দাবি করার জন্য ব্লগ লিখি না, লিখতে ভালো লাগে তাই লিখি।

Story MakerList MakerContent Author

মন্তব্য

উত্তর দিন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

লোড হচ্ছে ...

0

Comments

0 comments

বিশ্বের যে কয়েকটি জায়গা পর্যটকদের হাতছানি দিয়ে ডাকে

পোল্যান্ডে কনসাল হিসেবে ওমর ফারুকের পুনঃনিয়োগ